Dhaka , Friday, 12 July 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

অভয়নগরে প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি ও রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন।

অভয়নগরে প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি ও রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন।

মোঃ কামাল হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটুক্তি ও রাষ্ট্রবিরোধী মিথ্যা-বানোয়াট অপপ্রচারের অভিযোগে বাংলাদেশ বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগ কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবিরকে যশোরের অভয়নগর উপজেলায় অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়েছে। উপজেলা ও নওয়াপাড়া পৌর আওয়ামী লীগ, জাতীয় শ্রমিকলীগ, উপজেলা ও পৌর যুবলীগ, ছাত্রলীগ, তরুণলীগ ও বাস্তহারা লীগের আয়োজনে বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই) দুপুরে নওয়াপাড়া প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলন থেকে এ ঘোষণা করা হয়।
সংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা, জাতীয় শ্রমিকলীগ রাজঘাট-নওয়াপাড়া শিল্পাঞ্চল শাখা ও নওয়াপাড়া মটরশ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাবেক প্যানেল মেয়র রবিন অধিকারী ব্যাচা। তিনি বলেন, সম্প্রতি আমার বিরুদ্ধে বাম গণতান্ত্রিক জোট ও তার শরীক বাংলাদেশ বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের নেতৃবৃন্দ যশোর শহরে প্রতিবাদ সভা ও সংবাদ সম্মেলন করেছে। উক্ত প্রতিবাদ সভা ও সংবাদ সম্মেলনে তারা আমার বিরুদ্ধে মনগড়া, মিথ্যা, বানোয়াট ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যমূলক বক্তব্য রেখেছে। সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করিয়েছে। আজকের এই সাংবাদিক সম্মেলন থেকে যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, বিএনপি-জামাতের এজেন্ডা বাস্তবায়নের লক্ষে গত ১৭ জুলাই সোমবার নওয়াপাড়া বেঙ্গল রেলগেট এলাকায় বাংলাদেশ বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক পরিচয়ে ইকবাল কবির জাহিদ ও তার সঙ্গে থাকা ২/৩ জন ব্যক্তি একটি মিনি ট্রাক নিয়ে অবস্থান করছিল। এসময় ইকবাল কবির জাহিদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কুটুক্তি, কুরুচিপূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বক্তব্য রাখেন। এক পর্যায়ে তিনি আওয়ামী ফ্যাসীবাদী সরকারের পদত্যাগ দাবি করে ভোট চোর, লুটেরা-দুর্নীতিবাজসহ মিথ্যা অপবাদ দিয়ে সাধারণ জনগণের মাঝে লিফলেট বিতরণ করেন। বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হলে আমি ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে যায় এবং তাদের এহেন কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করি। এসময় সাধারণ জনগণ ওই ঘটনার ভিডিও ধারণ করে।
তিনি বলেন, আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন মাঠকর্মী ও বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের অসহায় শ্রমিকদের একজন বন্ধু। যে কারণে সংসদীয় যশোর-৪ আসনের সর্বত্র আমার বিচরণ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ আমার রন্দ্রে রন্দ্রে বিদ্যমান। আর সেই সরকারের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন কুরুটিপূর্ণ বক্তব্য ও লিফলেট বিতরণ স্বাধীনতার স্বপক্ষের কেও মেনে নিতে পারে না। যা আমিও মেনে নিতে পারিনি। ঘটনাস্থলে তীব্র প্রতিবাদ করেছি। তারা শেখ হাসিনার অধিনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাধাগ্রস্ত করার জন্য স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তি বিএনপি-জামাতের সেখানো বুলি এবং সরকার বিরোধী অপপ্রচার চালিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে।
সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ওই দিন ভাংচুর, মারপিট, হামলার ঘটনা ঘটলে তারা কেন অভয়নগর থানায় অভিযোগ করেনি। তারা যশোরে গিয়ে আমাকে ও আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করেছে। আজকের এই সংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে ইকবাল কবির জাহিদসহ তার অন্যান্য সদস্যদের বিরুদ্ধে দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র ও বিএনপি-জামাতের এজেন্ডা বাস্তবায়নকারী হিসেবে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণের দাবি করছি। একই সাথে মিথ্যাবাদী ইকবাল কবির জাহিদকে অভয়নগর উপজেলায় অবাঞ্চিত ঘোষণা করছি।
সংবাদিক সম্মেলন চলাকালে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও নওয়াপাড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম সরদার, সহ-সভাপতি আব্দুল গনি সুবর্না, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুর রউফ মোল্যা, রাজঘাট-নওয়াপাড়া শিল্পাঞ্চল শাখা শ্রমিকলীগের সভাপতি ফারাজী নজরুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আব্দুল ওয়াদুদ, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও পৌর কাউন্সিলর তালিম হোসেন, সদস্য অনুপ অধিকারী, শ্রমিক নেতা খন্দকার শহিদুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা সাঈদ আলম বাচ্চু, নূর ইসলাম মহোলদার, জিয়াউদ্দীন পলাশ, নাসির ফারাজী, আমির গোলদার, আব্দুর রশিদ বেপারী, পৌর যুবলীগের আহবায়ক হাসান গাজী, যুগ্ম আহবায়ক বেল্লাল আহমেদ বাবু, বাস্তহারা লীগের সভাপতি নুর ইসলাম হাওলাদার, পৌর বাস্তহারা লীগের সভাপতি লুৎফর সানা, উপজেলা তরুণলীগের সভাপতি বিল্লাল হোসেন বকুল, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ বিশ্বাস, পৌর তরুণলীগের যুগ্ম আহবায়ক রাজিব হোসেন, ইউপি সদস্য শেখ আব্দুল্লাহ সহ বিভিন্ন সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

অভয়নগরে প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি ও রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন।

আপডেটের সময় 08:17 pm, Thursday, 20 July 2023

অভয়নগরে প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি ও রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন।

মোঃ কামাল হোসেন, বিশেষ প্রতিনিধি


প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটুক্তি ও রাষ্ট্রবিরোধী মিথ্যা-বানোয়াট অপপ্রচারের অভিযোগে বাংলাদেশ বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগ কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবিরকে যশোরের অভয়নগর উপজেলায় অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়েছে। উপজেলা ও নওয়াপাড়া পৌর আওয়ামী লীগ, জাতীয় শ্রমিকলীগ, উপজেলা ও পৌর যুবলীগ, ছাত্রলীগ, তরুণলীগ ও বাস্তহারা লীগের আয়োজনে বৃহস্পতিবার (২০ জুলাই) দুপুরে নওয়াপাড়া প্রেস ক্লাবে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলন থেকে এ ঘোষণা করা হয়।
সংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা, জাতীয় শ্রমিকলীগ রাজঘাট-নওয়াপাড়া শিল্পাঞ্চল শাখা ও নওয়াপাড়া মটরশ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাবেক প্যানেল মেয়র রবিন অধিকারী ব্যাচা। তিনি বলেন, সম্প্রতি আমার বিরুদ্ধে বাম গণতান্ত্রিক জোট ও তার শরীক বাংলাদেশ বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের নেতৃবৃন্দ যশোর শহরে প্রতিবাদ সভা ও সংবাদ সম্মেলন করেছে। উক্ত প্রতিবাদ সভা ও সংবাদ সম্মেলনে তারা আমার বিরুদ্ধে মনগড়া, মিথ্যা, বানোয়াট ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যমূলক বক্তব্য রেখেছে। সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করিয়েছে। আজকের এই সাংবাদিক সম্মেলন থেকে যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, বিএনপি-জামাতের এজেন্ডা বাস্তবায়নের লক্ষে গত ১৭ জুলাই সোমবার নওয়াপাড়া বেঙ্গল রেলগেট এলাকায় বাংলাদেশ বিপ্লবী কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক পরিচয়ে ইকবাল কবির জাহিদ ও তার সঙ্গে থাকা ২/৩ জন ব্যক্তি একটি মিনি ট্রাক নিয়ে অবস্থান করছিল। এসময় ইকবাল কবির জাহিদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কুটুক্তি, কুরুচিপূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন বক্তব্য রাখেন। এক পর্যায়ে তিনি আওয়ামী ফ্যাসীবাদী সরকারের পদত্যাগ দাবি করে ভোট চোর, লুটেরা-দুর্নীতিবাজসহ মিথ্যা অপবাদ দিয়ে সাধারণ জনগণের মাঝে লিফলেট বিতরণ করেন। বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হলে আমি ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে যায় এবং তাদের এহেন কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করি। এসময় সাধারণ জনগণ ওই ঘটনার ভিডিও ধারণ করে।
তিনি বলেন, আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন মাঠকর্মী ও বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের অসহায় শ্রমিকদের একজন বন্ধু। যে কারণে সংসদীয় যশোর-৪ আসনের সর্বত্র আমার বিচরণ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ আমার রন্দ্রে রন্দ্রে বিদ্যমান। আর সেই সরকারের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন কুরুটিপূর্ণ বক্তব্য ও লিফলেট বিতরণ স্বাধীনতার স্বপক্ষের কেও মেনে নিতে পারে না। যা আমিও মেনে নিতে পারিনি। ঘটনাস্থলে তীব্র প্রতিবাদ করেছি। তারা শেখ হাসিনার অধিনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন বাধাগ্রস্ত করার জন্য স্বাধীনতার বিপক্ষের শক্তি বিএনপি-জামাতের সেখানো বুলি এবং সরকার বিরোধী অপপ্রচার চালিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে।
সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ওই দিন ভাংচুর, মারপিট, হামলার ঘটনা ঘটলে তারা কেন অভয়নগর থানায় অভিযোগ করেনি। তারা যশোরে গিয়ে আমাকে ও আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করেছে। আজকের এই সংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে ইকবাল কবির জাহিদসহ তার অন্যান্য সদস্যদের বিরুদ্ধে দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র ও বিএনপি-জামাতের এজেন্ডা বাস্তবায়নকারী হিসেবে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণের দাবি করছি। একই সাথে মিথ্যাবাদী ইকবাল কবির জাহিদকে অভয়নগর উপজেলায় অবাঞ্চিত ঘোষণা করছি।
সংবাদিক সম্মেলন চলাকালে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও নওয়াপাড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম সরদার, সহ-সভাপতি আব্দুল গনি সুবর্না, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুর রউফ মোল্যা, রাজঘাট-নওয়াপাড়া শিল্পাঞ্চল শাখা শ্রমিকলীগের সভাপতি ফারাজী নজরুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আব্দুল ওয়াদুদ, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ও পৌর কাউন্সিলর তালিম হোসেন, সদস্য অনুপ অধিকারী, শ্রমিক নেতা খন্দকার শহিদুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা সাঈদ আলম বাচ্চু, নূর ইসলাম মহোলদার, জিয়াউদ্দীন পলাশ, নাসির ফারাজী, আমির গোলদার, আব্দুর রশিদ বেপারী, পৌর যুবলীগের আহবায়ক হাসান গাজী, যুগ্ম আহবায়ক বেল্লাল আহমেদ বাবু, বাস্তহারা লীগের সভাপতি নুর ইসলাম হাওলাদার, পৌর বাস্তহারা লীগের সভাপতি লুৎফর সানা, উপজেলা তরুণলীগের সভাপতি বিল্লাল হোসেন বকুল, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ বিশ্বাস, পৌর তরুণলীগের যুগ্ম আহবায়ক রাজিব হোসেন, ইউপি সদস্য শেখ আব্দুল্লাহ সহ বিভিন্ন সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।