Dhaka , Monday, 20 May 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

ঈশ্বরদী ইপিজেডে দাবি পূরণের আশ্বাসে কাজে যোগদান শ্রমিকদের

 

নিউজ ডেস্ক দৈনিক চলনবিলের কথা

পাবনার ঈশ্বরদী ইপিজেডে জাপানি পোশাক তৈরির কারখানা নাকানো ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানী লিমিটেডের দোভাষী ও নির্বাহী কর্মকর্তা সুইটি আক্তারের অপসারণ, বেতন-বোনাস বৃদ্ধি ও শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে কারখানার সামনে বিক্ষোভ করেছেন শ্রমিকরা।

সোমবার (২৭ মার্চ) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক-কর্মচারী একযোগে কারখানা থেকে বেরিয়ে সুইটি আক্তারের অপসারণ দাবিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এসময় শ্রমিকরা প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে স্লোগান দেন।

শ্রমিকরা বলেন, নাকানো ইন্টারন্যাশনালের দোভাষী ও নির্বাহী কর্মকর্তা সুইটি খাতুন শ্রমিকদের নানাভাবে নাজেহাল ও লাঞ্ছিত করেন। তার অত্যাচারে শ্রমিকরা অতিষ্ঠ। তাকে দ্রুত অপসারণ করতে হবে। কথায় কথায় শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ ও বেতন-বোনাস বাড়াতে হবে।

শ্রমিকদের অভিযোগ, সুইটি আক্তার ছুটির দিনেও শ্রমিকদের কাজ করতে বাধ্য করেন। ওভারটাইম নিয়মানুযায়ী দেন না। শ্রমিকদের কোনো আত্মীয়-স্বজন মারা গেলে ও নিজেরা অসুস্থ হলেও তিনি ছুটি দিতে চান না। কেউ কোনো কাজে ভুল করলে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা জরিমানা করেন। মাতৃত্বকালীন ছুটি না দিয়ে চাকরিচ্যুত করেন।

পাকশী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম জানান, দাবি পূরণের আশ্বাস পেয়ে দুপুর দেড়টার দিকে শ্রমিকরা কাজে যোগ দেন।

এ বিষয়ে ঈশ্বরদী ইপিজেডের নির্বাহী পরিচালক (জিএম) আনিসুর রহমান বলেন, দোভাষী সুইটি আক্তারের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের অভিযোগ গুরুত্বসহকারে দেখা হবে। শ্রমিকদের দাবিগুলো বিবেচনা করা হবে। পরিস্থিতি এখন পুরোপুরি স্বাভাবিক রয়েছে।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

ঈশ্বরদী ইপিজেডে দাবি পূরণের আশ্বাসে কাজে যোগদান শ্রমিকদের

আপডেটের সময় 06:18 pm, Monday, 27 March 2023

 

নিউজ ডেস্ক দৈনিক চলনবিলের কথা

পাবনার ঈশ্বরদী ইপিজেডে জাপানি পোশাক তৈরির কারখানা নাকানো ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানী লিমিটেডের দোভাষী ও নির্বাহী কর্মকর্তা সুইটি আক্তারের অপসারণ, বেতন-বোনাস বৃদ্ধি ও শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদে কারখানার সামনে বিক্ষোভ করেছেন শ্রমিকরা।

সোমবার (২৭ মার্চ) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে প্রায় দেড় হাজার শ্রমিক-কর্মচারী একযোগে কারখানা থেকে বেরিয়ে সুইটি আক্তারের অপসারণ দাবিতে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এসময় শ্রমিকরা প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে স্লোগান দেন।

শ্রমিকরা বলেন, নাকানো ইন্টারন্যাশনালের দোভাষী ও নির্বাহী কর্মকর্তা সুইটি খাতুন শ্রমিকদের নানাভাবে নাজেহাল ও লাঞ্ছিত করেন। তার অত্যাচারে শ্রমিকরা অতিষ্ঠ। তাকে দ্রুত অপসারণ করতে হবে। কথায় কথায় শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ ও বেতন-বোনাস বাড়াতে হবে।

শ্রমিকদের অভিযোগ, সুইটি আক্তার ছুটির দিনেও শ্রমিকদের কাজ করতে বাধ্য করেন। ওভারটাইম নিয়মানুযায়ী দেন না। শ্রমিকদের কোনো আত্মীয়-স্বজন মারা গেলে ও নিজেরা অসুস্থ হলেও তিনি ছুটি দিতে চান না। কেউ কোনো কাজে ভুল করলে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা জরিমানা করেন। মাতৃত্বকালীন ছুটি না দিয়ে চাকরিচ্যুত করেন।

পাকশী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম জানান, দাবি পূরণের আশ্বাস পেয়ে দুপুর দেড়টার দিকে শ্রমিকরা কাজে যোগ দেন।

এ বিষয়ে ঈশ্বরদী ইপিজেডের নির্বাহী পরিচালক (জিএম) আনিসুর রহমান বলেন, দোভাষী সুইটি আক্তারের বিরুদ্ধে শ্রমিকদের অভিযোগ গুরুত্বসহকারে দেখা হবে। শ্রমিকদের দাবিগুলো বিবেচনা করা হবে। পরিস্থিতি এখন পুরোপুরি স্বাভাবিক রয়েছে।