Dhaka , Monday, 20 May 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

এমআইটিতে পড়তে চায় নিঝুম, অর্পি-আলফির স্বপ্ন চিকিৎসক হওয়া 

এবারের এসএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ সহ উপজেলায় প্রথমস্থান অর্জন করেছে ফারহা ফেরদৌস নিঝুম। তার প্রাপ্ত নম্বর ১২১৬। নিঝুম পৌরসভার মমতাজ-মোস্তফা আইডিয়াল স্কুলের শিক্ষার্থী। সে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে। উপজেলার চরভাঙ্গড়া গ্রামের  আব্দুল হান্নান ও শবনম অনুপা দম্পতির একমাত্র মেয়ে সে।
নিঝুম যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে(এমআইটি)পড়াশোনা করতে চায়। অপরদিকে গোল্ডেন জিপিএ-৫  সহ উপজেলায় দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে ভাঙ্গুড়া মডেল স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী নওশিন অর্পি। তার প্রাপ্ত নম্বর ১২১৪। তার বাড়ি উপজেলার ভবানীপুর গ্রামে। সে সরকারি হাজী জামাল উদ্দিন ডিগ্রী অনার্স কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রভাষক মোহাম্মদ সোহায়েল সাচ্চুর মেয়ে। অর্পির স্বপ্ন, ভবিষ্যতে একজন মানবিক চিকিৎসক হওয়া।
এছাড়া গোল্ডেন জিপিএ-৫ সহ ১২১১ নম্বর পেয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে মমতাজ-মোস্তফা আইডিয়াল স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী নিশাত জামিল আলফি। সে বেসরকারি সংস্থা আশার সাঁথিয়া শাখার সিনিয়র লোন অফিসার জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে। আলফির বাড়ি সাঁথিয়ার কাশিনাথপুরে। সে বড় হয়ে চিকিৎসক হতে চায়।
মমতাজ-মোস্তফা আইডিয়াল স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হাকিম বলেন, বরাবরের মতো এবারও এসএসসিতে উপজেলায় শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি। এ বছরে পাশের হার ৯৯ শতাংশ। তিনি বিদ্যালয়ের এসকল কৃতি শিক্ষার্থীদের জীবনের সার্বিক সফলতা কামনা করেন।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

এমআইটিতে পড়তে চায় নিঝুম, অর্পি-আলফির স্বপ্ন চিকিৎসক হওয়া 

আপডেটের সময় 02:53 pm, Wednesday, 15 May 2024
এবারের এসএসসি পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ সহ উপজেলায় প্রথমস্থান অর্জন করেছে ফারহা ফেরদৌস নিঝুম। তার প্রাপ্ত নম্বর ১২১৬। নিঝুম পৌরসভার মমতাজ-মোস্তফা আইডিয়াল স্কুলের শিক্ষার্থী। সে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে। উপজেলার চরভাঙ্গড়া গ্রামের  আব্দুল হান্নান ও শবনম অনুপা দম্পতির একমাত্র মেয়ে সে।
নিঝুম যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে(এমআইটি)পড়াশোনা করতে চায়। অপরদিকে গোল্ডেন জিপিএ-৫  সহ উপজেলায় দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেছে ভাঙ্গুড়া মডেল স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী নওশিন অর্পি। তার প্রাপ্ত নম্বর ১২১৪। তার বাড়ি উপজেলার ভবানীপুর গ্রামে। সে সরকারি হাজী জামাল উদ্দিন ডিগ্রী অনার্স কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রভাষক মোহাম্মদ সোহায়েল সাচ্চুর মেয়ে। অর্পির স্বপ্ন, ভবিষ্যতে একজন মানবিক চিকিৎসক হওয়া।
এছাড়া গোল্ডেন জিপিএ-৫ সহ ১২১১ নম্বর পেয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে মমতাজ-মোস্তফা আইডিয়াল স্কুলের বিজ্ঞান বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী নিশাত জামিল আলফি। সে বেসরকারি সংস্থা আশার সাঁথিয়া শাখার সিনিয়র লোন অফিসার জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে। আলফির বাড়ি সাঁথিয়ার কাশিনাথপুরে। সে বড় হয়ে চিকিৎসক হতে চায়।
মমতাজ-মোস্তফা আইডিয়াল স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হাকিম বলেন, বরাবরের মতো এবারও এসএসসিতে উপজেলায় শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি। এ বছরে পাশের হার ৯৯ শতাংশ। তিনি বিদ্যালয়ের এসকল কৃতি শিক্ষার্থীদের জীবনের সার্বিক সফলতা কামনা করেন।