Dhaka , Monday, 20 May 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

নাটোরের গুরুদাসপুরে ছাত্রীকে নিয়ে উধাও প্রধান শিক্ষক

 

মেহেরুল ইসলাম মোহন নাটোর

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর মরিয়ম মেমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এক এস এস সি পরীক্ষার্থীকে নিয়ে উধাও হয়েছেন একই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ(৪৮)।
পরে ঐ ছাত্রীর মা নাদিরা বেগম বাদি হয়ে গুরুদাসপুর থানায় প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ সহ তার দুই ভাই ফেরদৌস(৪৫) ও ফেন্সি(৪৩) কে আসামী করে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন।শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর গ্রামের মৃত গোলাম মোস্তফার ছেলে বলে জানা গেছে।অপহৃত ছাত্রী ওই বিদ্যালয়ের এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শিক্ষক ফিরোজের সাথে ঐ শিক্ষার্থীর পরিবারের খুবই ঘনিষ্ঠতা ছিল।এক পর্যায়ে ওই ছাত্রী ও শিক্ষকের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। অতঃপর শনিবার(১লা অক্টোবর-২০২২)সকাল ১০টার দিকে ওই ছাত্রী ব্যবহারিক পরীক্ষা দেওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়।পরে দুপুর ২ টার দিকে সে বাড়িতে ফিরে না আসলে পরিবারের সদস্যরা তাকে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে জানতে পারে প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ ঐ শিক্ষার্থীকে একটি মাইক্রোবাসে উঠিয়ে নিয়ে গেছে।খবর পেয়ে রাজশাহীর ভদ্রা এলাকার একটি বাসায় গিয়ে তাদের সন্ধান পান শিক্ষার্থীর পরিবারের লোকজন।এরপর ছাত্রীর অবিভাবকরা শিক্ষকের দুই ভাই ফেরদৌস ও ফেন্সিকে জানালে তারা ছাত্রীকে ফিরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেন।পরে রাত দশটার দিকে মেয়েটিকে ফেরত দিতে বাধা দিলে পরিবারের সদস্যরা থানা পুলিশের শরণাপন্ন হতে বাহিরে যাওয়ার সুযোগে প্রধান শিক্ষক ঐ ছাত্রীকে নিয়ে ফের পালিয়ে যায়।পরে রাত ১১টার দিকে প্রধান শিক্ষক ফিরোজের নামে মামলা দায়ের হয়।এরপর থেকে এখন পর্যন্ত তাদের সন্ধান মিলে নি।

এ বিষয়ে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল মতিন জানান, শিক্ষার্থীর মা নাদিরা বেগম বাদি হয়ে প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহম্মেদসহ তার দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে একটি অপহরন মামলা দায়ের করেছেন। শিক্ষার্থীকে উদ্ধার ও অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ও তার ভাইদের গ্রেফতার করতে পুলিশি তৎপরতা চলছে।

ট্যাগ:

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

নাটোরের গুরুদাসপুরে ছাত্রীকে নিয়ে উধাও প্রধান শিক্ষক

আপডেটের সময় 05:45 pm, Sunday, 2 October 2022

 

মেহেরুল ইসলাম মোহন নাটোর

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর মরিয়ম মেমোরিয়াল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এক এস এস সি পরীক্ষার্থীকে নিয়ে উধাও হয়েছেন একই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ(৪৮)।
পরে ঐ ছাত্রীর মা নাদিরা বেগম বাদি হয়ে গুরুদাসপুর থানায় প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ সহ তার দুই ভাই ফেরদৌস(৪৫) ও ফেন্সি(৪৩) কে আসামী করে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন।শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর গ্রামের মৃত গোলাম মোস্তফার ছেলে বলে জানা গেছে।অপহৃত ছাত্রী ওই বিদ্যালয়ের এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শিক্ষক ফিরোজের সাথে ঐ শিক্ষার্থীর পরিবারের খুবই ঘনিষ্ঠতা ছিল।এক পর্যায়ে ওই ছাত্রী ও শিক্ষকের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। অতঃপর শনিবার(১লা অক্টোবর-২০২২)সকাল ১০টার দিকে ওই ছাত্রী ব্যবহারিক পরীক্ষা দেওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়।পরে দুপুর ২ টার দিকে সে বাড়িতে ফিরে না আসলে পরিবারের সদস্যরা তাকে খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে জানতে পারে প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ ঐ শিক্ষার্থীকে একটি মাইক্রোবাসে উঠিয়ে নিয়ে গেছে।খবর পেয়ে রাজশাহীর ভদ্রা এলাকার একটি বাসায় গিয়ে তাদের সন্ধান পান শিক্ষার্থীর পরিবারের লোকজন।এরপর ছাত্রীর অবিভাবকরা শিক্ষকের দুই ভাই ফেরদৌস ও ফেন্সিকে জানালে তারা ছাত্রীকে ফিরিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেন।পরে রাত দশটার দিকে মেয়েটিকে ফেরত দিতে বাধা দিলে পরিবারের সদস্যরা থানা পুলিশের শরণাপন্ন হতে বাহিরে যাওয়ার সুযোগে প্রধান শিক্ষক ঐ ছাত্রীকে নিয়ে ফের পালিয়ে যায়।পরে রাত ১১টার দিকে প্রধান শিক্ষক ফিরোজের নামে মামলা দায়ের হয়।এরপর থেকে এখন পর্যন্ত তাদের সন্ধান মিলে নি।

এ বিষয়ে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল মতিন জানান, শিক্ষার্থীর মা নাদিরা বেগম বাদি হয়ে প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহম্মেদসহ তার দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে একটি অপহরন মামলা দায়ের করেছেন। শিক্ষার্থীকে উদ্ধার ও অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ও তার ভাইদের গ্রেফতার করতে পুলিশি তৎপরতা চলছে।