Dhaka , Tuesday, 27 February 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

পাবনায় নিপাহ ভাইরাসে মৃত্যুর ঘটনায় পর্যবেক্ষণে আইইডিসিআর প্রতিনিধি দল

 

নিউজ ডেস্ক দৈনিক চলনবিলের কথা

খেজুরের রস পানে নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত শিশু সোয়াদের (৭) মৃত্যুর ঘটনা পর্যবেক্ষণে ঢাকা থেকে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) ১২ সদস্যের প্রতিনিধি দল পাবনার ঈশ্বরদীতে সোয়াদের বাড়িতে আসে।

আইইডিসিআরের সায়েন্টিফিক অফিসার ডা. কাইয়ুমের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল সোমবার (২৩ জানুয়ারী) রাত সোয়া ৯টার দিকে সোয়াদের বাড়িতে পৌঁছায়। এসময় সেখানে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা ডা. আসমা খান উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিনিধি দলের সদস্যরা শিশু সোয়াদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন এবং খেজুরের রস প্রসঙ্গে বিস্তারিত জানতে চান। তবে আইইডিসিআর প্রতিনিধি দলের প্রধান ডা. কাইয়ুম গণমাধ্যমের কাছে এ বিষয়ে তৎক্ষণাৎ কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ঢাকায় ফিরে অফিসিয়ালভাবে এ বিষয়ে জানানো হবে।

ঈশ্বরদী উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নের দিঘা গ্রামের সামিউল হোসেনের ছেলে সোয়াদ সোমবার (২৩ জানুয়ারী) ভোরে নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মারা যায়।

এর আগে ১৭ জানুয়ারী সোয়াদের নানা বাড়ি থেকে খেজুরের রস পাঠানো হয়। সে রস পান করে সোয়াদ ঠান্ডা-জ্বরে আক্রান্ত হয়। ২০ জানুয়ারী সকালে সোয়াদকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তখন সোয়াদের শরীরে প্রচণ্ড জ্বর ছিল। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ওইদিন বিকেলেই রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন গতকাল সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

পাবনায় নিপাহ ভাইরাসে মৃত্যুর ঘটনায় পর্যবেক্ষণে আইইডিসিআর প্রতিনিধি দল

আপডেটের সময় 05:18 pm, Tuesday, 24 January 2023

 

নিউজ ডেস্ক দৈনিক চলনবিলের কথা

খেজুরের রস পানে নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত শিশু সোয়াদের (৭) মৃত্যুর ঘটনা পর্যবেক্ষণে ঢাকা থেকে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) ১২ সদস্যের প্রতিনিধি দল পাবনার ঈশ্বরদীতে সোয়াদের বাড়িতে আসে।

আইইডিসিআরের সায়েন্টিফিক অফিসার ডা. কাইয়ুমের নেতৃত্বে প্রতিনিধি দল সোমবার (২৩ জানুয়ারী) রাত সোয়া ৯টার দিকে সোয়াদের বাড়িতে পৌঁছায়। এসময় সেখানে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা ডা. আসমা খান উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিনিধি দলের সদস্যরা শিশু সোয়াদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন এবং খেজুরের রস প্রসঙ্গে বিস্তারিত জানতে চান। তবে আইইডিসিআর প্রতিনিধি দলের প্রধান ডা. কাইয়ুম গণমাধ্যমের কাছে এ বিষয়ে তৎক্ষণাৎ কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ঢাকায় ফিরে অফিসিয়ালভাবে এ বিষয়ে জানানো হবে।

ঈশ্বরদী উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নের দিঘা গ্রামের সামিউল হোসেনের ছেলে সোয়াদ সোমবার (২৩ জানুয়ারী) ভোরে নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মারা যায়।

এর আগে ১৭ জানুয়ারী সোয়াদের নানা বাড়ি থেকে খেজুরের রস পাঠানো হয়। সে রস পান করে সোয়াদ ঠান্ডা-জ্বরে আক্রান্ত হয়। ২০ জানুয়ারী সকালে সোয়াদকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তখন সোয়াদের শরীরে প্রচণ্ড জ্বর ছিল। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ওইদিন বিকেলেই রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন গতকাল সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।