দৈনিক চলনবিলের কথা
ঢাকাWednesday , 31 August 2022
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অপহরণ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন-আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আলোচনা সভা
  8. ই-পেপার
  9. এক্সক্লুসিভ
  10. কুষি
  11. ক্রিকেট
  12. খুলনা
  13. খেলাধুলা
  14. গণমাধ্যম
  15. গাছ

পাবনার চাটমোহরে জমজমাট খৈলশুনি বিক্রির হাট

chk24 a3
August 31, 2022 10:51 am
Link Copied!

 

পাবনা (জেলা) প্রতিনিধি

 

 

পাবনার চাটমোহরসহ চলনবিল অঞ্চলে মাছ ধরার অন্যতম উপকরণ খৈলশুনি বা চাঁই বিক্রির হাটগুলো জমে উঠেছে। চাটমোহরের সর্ববৃহৎ অমৃতকুন্ডা (রেলবাজার) হাট ঘরে দেখা গেছে, রেলওয়ে স্টেশনের পশ্চিম পাশে রেলওয়ে খেলার মাঠে সরগরম খৈলশুনির হাট।

 

সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ হাটে চলে খৈলশুনি বেচাকেনা। উপজেলার রেল বাজার ছাড়াও ছাইকোলাসহ অন্যান্য হাটে খৈলশুনি খুচরা ও পাইকারী বিক্রি হয়।

 

বর্ষায় খেতে কাজ না থাকায় চলনবিল অঞ্চলের মানুষ জীবন-জীবিকার জন্য মাছ ধরার কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। তাই বর্ষায় খৈলশুনির কদরও বেড়ে যায় বহুগুণে। মাছ ধরার এ উপকরণ সারাবছর বিক্রি হলেও বর্ষা মৌসুমে চাহিদা বেড়ে যায়। চাটমোহরের ধরইল মৎস্যজীবি পাড়ার সেলিম রেজা জানান, খৈলশুনি তৈরি তার পৈত্রিক পেশা। মাছও ধরেন তিনি। স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে খৈলশুনি তৈরি করেন তিনি। রফিকের মতো ধরইল মৎস্যজীবি পাড়ার শতাধিক পরিবার খৈলশুর তৈরি করে বিক্রি করেন। প্রতি জোড়া খৈলশুনি বিক্রি করলে ১০০ টাকার বেশি লাভ হয়। বাঁশের খিল আর তালের ডাগুরের আঁশ দিয়ে খৈলশুনি তৈরি করা হয় বলে জানান মৎস্যজীবিরা।

 

মৎস্যজীবিরা জানান, এখন বিল ও নদীতে অবৈধ চায়না দুযারি জালের কারণে খৈলশুনির চাহিদা কমে গেছে। চায়না দুয়ারি জাল দিয়ে বিল ও নদীর সব ধরণের মাছ ধরা হচ্ছে। অল্প পানিতেও পেতে রাখা হচ্ছে মাছ মারার এই ফাঁদ। চায়না দুয়ারির কারণে দেশী প্রজাতির সকল মাছ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। অনেকে খৈলশুনির পরিবর্তে চায়না জাল কিনে মাছ ধরছেন।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
x