Dhaka , Friday, 12 July 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

পূজা মন্ডপে পাহাড়ি বাঙ্গালির মিলন মেলার মাধ্যমে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় থাকবে -লেঃ কর্নেল মুনতাসির।

 


মোঃমহিউদ্দিন
বাঘাইছড়ি প্রতিনিধিঃ-
সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় মহোৎসব ‘শারদীয় দুর্গা উৎসব’ উদযাপিত হচ্ছে বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেকের দুইটি পূজা মন্ডপে। বুধবার বিজয়া দশমী উদযাপনের মধ্যে দিয়ে দূর্গাপূজা শেষ হবে। দূর্গাপূজা উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বী পরিবারের মধ্যে ব্যাপক আনন্দ ও উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। পূজামন্ডপ স্থানগুলোতে বসেছে ছোট খাটো মেলা।

রোববার সাজেক ইউনিয়নের বাঘাইহাট এলাকায় দূর্গাপুজা মন্ডপ পরিদর্শন সহ হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে ‘দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা’ বিনিময় করেছেন ৬ইষ্ট বেঙ্গল বাঘাইহাট জোন কমান্ডার লেঃ কর্নেল মুনতাসির রহমান চৌধুরী পিএসসি ও ভারপ্রাপ্ত উপ-অধিনায়ক মেজর আকতার বিন মুকতাদিরুল গানিউর রহমান।

এসময় উপস্থিত ছিলেনঃ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নেলসন চাকমা, ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার দয়াধন চাকমা, বাংলাদেশ আওয়ামী বাঘাইছড়ি উপজেলা শাখা সদস্য আনোয়ার হোসেন, বাঘাইহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাক্ষ্য-বধি চাকমা, বাঘাইহাট বাজার সভাপতি ডাক্তার নাজিম উদ্দীন, বাঘাইহাট বাজার সেক্রেটারি জুয়েল হোসেন, দূর্গাপুজা কমিটির সভাপতি সুজিৎ দে , শুভ চৌধুরী এবং এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এসময় জোন কমান্ডার বলেন, হিন্দু সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব হচ্ছে শারদীয় দূর্গাপূজা উৎসব। আজকের সপ্তমীতে পূজা মন্ডপে আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে পাহাড়ি বাঙালি একত্রিত হয়ে যেভাবে পূজা মন্ডপে এসেছেন তাতে বুঝা যায় প্রত্যেকে যার যার ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং এক ধর্ম অন্য ধর্মকে শ্রদ্বাকরে থাকেন। এরই মাধ্যমে এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় থাকে বলে মনে করেন।

তিনি আরো বলেন সবাই একত্রিত হয়ে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে পারলে সামাজিক অবক্ষয় হবেনা এবং ভবিষ্যতে এধরনের অনুষ্ঠানে সেনাবাহিনী বাঘাইহাট জোন সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন।

ট্যাগ:

পূজা মন্ডপে পাহাড়ি বাঙ্গালির মিলন মেলার মাধ্যমে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় থাকবে -লেঃ কর্নেল মুনতাসির।

আপডেটের সময় 06:47 pm, Monday, 3 October 2022

 


মোঃমহিউদ্দিন
বাঘাইছড়ি প্রতিনিধিঃ-
সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় মহোৎসব ‘শারদীয় দুর্গা উৎসব’ উদযাপিত হচ্ছে বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেকের দুইটি পূজা মন্ডপে। বুধবার বিজয়া দশমী উদযাপনের মধ্যে দিয়ে দূর্গাপূজা শেষ হবে। দূর্গাপূজা উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বী পরিবারের মধ্যে ব্যাপক আনন্দ ও উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। পূজামন্ডপ স্থানগুলোতে বসেছে ছোট খাটো মেলা।

রোববার সাজেক ইউনিয়নের বাঘাইহাট এলাকায় দূর্গাপুজা মন্ডপ পরিদর্শন সহ হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে ‘দূর্গাপূজার শুভেচ্ছা’ বিনিময় করেছেন ৬ইষ্ট বেঙ্গল বাঘাইহাট জোন কমান্ডার লেঃ কর্নেল মুনতাসির রহমান চৌধুরী পিএসসি ও ভারপ্রাপ্ত উপ-অধিনায়ক মেজর আকতার বিন মুকতাদিরুল গানিউর রহমান।

এসময় উপস্থিত ছিলেনঃ সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নেলসন চাকমা, ৪নং ওয়ার্ড মেম্বার দয়াধন চাকমা, বাংলাদেশ আওয়ামী বাঘাইছড়ি উপজেলা শাখা সদস্য আনোয়ার হোসেন, বাঘাইহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাক্ষ্য-বধি চাকমা, বাঘাইহাট বাজার সভাপতি ডাক্তার নাজিম উদ্দীন, বাঘাইহাট বাজার সেক্রেটারি জুয়েল হোসেন, দূর্গাপুজা কমিটির সভাপতি সুজিৎ দে , শুভ চৌধুরী এবং এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এসময় জোন কমান্ডার বলেন, হিন্দু সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব হচ্ছে শারদীয় দূর্গাপূজা উৎসব। আজকের সপ্তমীতে পূজা মন্ডপে আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে পাহাড়ি বাঙালি একত্রিত হয়ে যেভাবে পূজা মন্ডপে এসেছেন তাতে বুঝা যায় প্রত্যেকে যার যার ধর্মের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং এক ধর্ম অন্য ধর্মকে শ্রদ্বাকরে থাকেন। এরই মাধ্যমে এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় থাকে বলে মনে করেন।

তিনি আরো বলেন সবাই একত্রিত হয়ে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে পারলে সামাজিক অবক্ষয় হবেনা এবং ভবিষ্যতে এধরনের অনুষ্ঠানে সেনাবাহিনী বাঘাইহাট জোন সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন।