Dhaka , Thursday, 29 February 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

বিশ্বজুড়ে ২০ কোটিরও বেশি ডিভাইস বিক্রি করেছে রিয়েলমি

বিশ্বজুড়ে ২০ কোটিরও বেশি ডিভাইস বিক্রি করেছে স্মার্টফোন ব্রান্ড রিয়েলমি। এর মাধ্যমে বৈশ্বিক স্মার্টফোনের বাজারে আরও একটি মাইলফলক অর্জন করল বর্ধনশীল এই ব্র্যান্ডটি। ২০২১ সালে ১০ কোটি মোবাইলফোন বিক্রির মাইলফলক অর্জন করার পর থেকেই সব ক্ষেত্রে সেরা স্থান অর্জন করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে তারা।

২০১৮ সালের অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক বাজারে যাত্রা শুরু করে ব্রান্ডটি। রিয়েলমি টানা পাঁচ বছর ধরে স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে বিক্রির ক্ষেত্রে বিশ্বের সেরা ১০ ব্র্যান্ডের মাঝে স্থান ধরে রেখেছে। আর সবচেয়ে দ্রুত ২০ কোটি বিক্রির এই মাইলফলক অর্জন করার ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে পঞ্চম স্থানে রয়েছে তারা।

সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি একটি ‘সিম্পলি বেটার স্ট্র্যাটেজি’ চালু করেছে, যার মাধ্যমে তারা তাদের সকল পণ্যের প্রতিটি নতুন ভ্যারিয়েন্টে ‘লিপ-ফরোওয়ার্ড’ প্রযুক্তি নিশ্চিত করছে। এই স্ট্র্যাটেজির মাধ্যমে ডিজাইন, পারফরমেন্স ও অভিজ্ঞতার ক্ষেত্রে লিপ-ফরোওয়ার্ড প্রযুক্তি, ডিজাইন ও পারফরমেন্স অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে রিয়েলমি। এ ছাড়াও, গবেষণা ও উন্নয়নে বিনিয়োগ অব্যাহত রেখে ডিসপ্লে, ফটোগ্রাফি, গেমিং ও চার্জিং -এর ক্ষেত্রে উদ্ভাবন আনতে রিয়েলমি গ্লোবাল ইন্সটিটিউট অব লিপ-ফরোওয়ার্ড টেকনলোজি চালু করেছে ব্র্যান্ডটি।

ব্যবসায়িক পরিস্থিতি কিছুটা চ্যালেঞ্জিং হওয়া স্বত্বেও প্রতিযোগিতামূলক বাজার ও বাহ্যিক পরিবেশের চাপ মোকাবিলা করে গত দুই বছর থেকে একটি স্থিতিশীল বৃদ্ধি বজায় রেখেছে ব্রান্ডটি। এই লিপ-ফরোয়ার্ড পণ্যগুলো ব্র্যান্ডটিকে বিশ্বের অধিকাংশ অঞ্চলে একটি শক্তিশালী উপস্থিতি প্রতিষ্ঠা করতে সহায়তা করেছে। ফলে, এই উদীয়মান বাজারে একটি শীর্ষস্থানীয় অংশীদার হিসেবে পরিচিতি গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে রিয়েলমি।

শুরু থেকেই তরুণদের চাহিদা পূরণ করার পাশাপাশি গ্রাহকদের কাছাকাছি থেকে তাদের চাহিদা অনুযায়ী ব্র্যান্ড ও পণ্য ক্রমাগত উন্নত করছে রিয়েলমি। ফলে, ব্যবহারকারীদের স্বীকৃতির মাধ্যমে একটি পারস্পরিক সাফল্য নিশ্চিত করছে তারা।

রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট খাতে ৪৭০ শতাংশ ব্যয় বৃদ্ধির মাধ্যমে ২০২৪ সালে তাদের প্রযুক্তিগত সক্ষমতায় উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি আনতে কাজ করছে রিয়েলমি। ৩৩টিরও বেশি নেতৃস্থানীয় আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি অংশীদারদের সাথে সহযোগিতার মাধ্যমে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি বিকাশের লক্ষ্যে এগোচ্ছে তারা। ৪০০ শতাংশ গবেষণা কর্মী বৃদ্ধির মাধ্যমে গবেষণা ও প্রযুক্তি দলের সম্প্রসারণে কাজ করছে রিয়েলমি।

রিয়েলমি’র পঞ্চম-বার্ষিকীর খোলা চিঠিতে রিয়েলমি’র প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও, স্কাই লি বলেন, “স্মার্টফোন খাতে ‘এলিভেটর-স্টাইল’ বিকাশের যুগ এখন শেষ। ভবিষ্যৎ পদক্ষেপগুলো আরও চ্যালেঞ্জিং হলেও প্রতিটি পদক্ষেপ রিয়েলমিকে তার পরবর্তী গন্তব্যের কাছাকাছি নিয়ে যায়। নতুন মাইলফলকের দিকে এগোনোর পাশাপাশি রিয়েলমি এর লক্ষ্যে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থেকে ক্রমাগত নতুন উচ্চতা অর্জনে কাজ করবে। এর পাশাপাশি, ব্যবহারকারীদের চাহিদা মাথায় রেখে তাদের বিকাশের লক্ষ্যে রিয়েলমির প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখে নিজেদেরকে নতুন মাত্রায় এগিয়ে নিতে কাজ করব আমরা।”

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

বিশ্বজুড়ে ২০ কোটিরও বেশি ডিভাইস বিক্রি করেছে রিয়েলমি

আপডেটের সময় 03:14 pm, Tuesday, 28 November 2023

বিশ্বজুড়ে ২০ কোটিরও বেশি ডিভাইস বিক্রি করেছে স্মার্টফোন ব্রান্ড রিয়েলমি। এর মাধ্যমে বৈশ্বিক স্মার্টফোনের বাজারে আরও একটি মাইলফলক অর্জন করল বর্ধনশীল এই ব্র্যান্ডটি। ২০২১ সালে ১০ কোটি মোবাইলফোন বিক্রির মাইলফলক অর্জন করার পর থেকেই সব ক্ষেত্রে সেরা স্থান অর্জন করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে তারা।

২০১৮ সালের অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক বাজারে যাত্রা শুরু করে ব্রান্ডটি। রিয়েলমি টানা পাঁচ বছর ধরে স্মার্টফোন ব্র্যান্ড হিসেবে বিক্রির ক্ষেত্রে বিশ্বের সেরা ১০ ব্র্যান্ডের মাঝে স্থান ধরে রেখেছে। আর সবচেয়ে দ্রুত ২০ কোটি বিক্রির এই মাইলফলক অর্জন করার ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে পঞ্চম স্থানে রয়েছে তারা।

সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি একটি ‘সিম্পলি বেটার স্ট্র্যাটেজি’ চালু করেছে, যার মাধ্যমে তারা তাদের সকল পণ্যের প্রতিটি নতুন ভ্যারিয়েন্টে ‘লিপ-ফরোওয়ার্ড’ প্রযুক্তি নিশ্চিত করছে। এই স্ট্র্যাটেজির মাধ্যমে ডিজাইন, পারফরমেন্স ও অভিজ্ঞতার ক্ষেত্রে লিপ-ফরোওয়ার্ড প্রযুক্তি, ডিজাইন ও পারফরমেন্স অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করার লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছে রিয়েলমি। এ ছাড়াও, গবেষণা ও উন্নয়নে বিনিয়োগ অব্যাহত রেখে ডিসপ্লে, ফটোগ্রাফি, গেমিং ও চার্জিং -এর ক্ষেত্রে উদ্ভাবন আনতে রিয়েলমি গ্লোবাল ইন্সটিটিউট অব লিপ-ফরোওয়ার্ড টেকনলোজি চালু করেছে ব্র্যান্ডটি।

ব্যবসায়িক পরিস্থিতি কিছুটা চ্যালেঞ্জিং হওয়া স্বত্বেও প্রতিযোগিতামূলক বাজার ও বাহ্যিক পরিবেশের চাপ মোকাবিলা করে গত দুই বছর থেকে একটি স্থিতিশীল বৃদ্ধি বজায় রেখেছে ব্রান্ডটি। এই লিপ-ফরোয়ার্ড পণ্যগুলো ব্র্যান্ডটিকে বিশ্বের অধিকাংশ অঞ্চলে একটি শক্তিশালী উপস্থিতি প্রতিষ্ঠা করতে সহায়তা করেছে। ফলে, এই উদীয়মান বাজারে একটি শীর্ষস্থানীয় অংশীদার হিসেবে পরিচিতি গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছে রিয়েলমি।

শুরু থেকেই তরুণদের চাহিদা পূরণ করার পাশাপাশি গ্রাহকদের কাছাকাছি থেকে তাদের চাহিদা অনুযায়ী ব্র্যান্ড ও পণ্য ক্রমাগত উন্নত করছে রিয়েলমি। ফলে, ব্যবহারকারীদের স্বীকৃতির মাধ্যমে একটি পারস্পরিক সাফল্য নিশ্চিত করছে তারা।

রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট খাতে ৪৭০ শতাংশ ব্যয় বৃদ্ধির মাধ্যমে ২০২৪ সালে তাদের প্রযুক্তিগত সক্ষমতায় উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি আনতে কাজ করছে রিয়েলমি। ৩৩টিরও বেশি নেতৃস্থানীয় আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি অংশীদারদের সাথে সহযোগিতার মাধ্যমে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি বিকাশের লক্ষ্যে এগোচ্ছে তারা। ৪০০ শতাংশ গবেষণা কর্মী বৃদ্ধির মাধ্যমে গবেষণা ও প্রযুক্তি দলের সম্প্রসারণে কাজ করছে রিয়েলমি।

রিয়েলমি’র পঞ্চম-বার্ষিকীর খোলা চিঠিতে রিয়েলমি’র প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও, স্কাই লি বলেন, “স্মার্টফোন খাতে ‘এলিভেটর-স্টাইল’ বিকাশের যুগ এখন শেষ। ভবিষ্যৎ পদক্ষেপগুলো আরও চ্যালেঞ্জিং হলেও প্রতিটি পদক্ষেপ রিয়েলমিকে তার পরবর্তী গন্তব্যের কাছাকাছি নিয়ে যায়। নতুন মাইলফলকের দিকে এগোনোর পাশাপাশি রিয়েলমি এর লক্ষ্যে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থেকে ক্রমাগত নতুন উচ্চতা অর্জনে কাজ করবে। এর পাশাপাশি, ব্যবহারকারীদের চাহিদা মাথায় রেখে তাদের বিকাশের লক্ষ্যে রিয়েলমির প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখে নিজেদেরকে নতুন মাত্রায় এগিয়ে নিতে কাজ করব আমরা।”