Dhaka , Sunday, 14 April 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

বেলকুচি চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডারের রহস্য উদঘাটনসহ হত্যাকারী গ্রেফতার।

 

আজিজুর রহমান মুন্না, সিরাজগঞ্জ ঃ

সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি উপজেলা ধুকুরিয়া বেড়া ইউনিয়নে মবুপুর গ্রামের দুই ছেলে সহ মা রওশন আরা বেগম(২৯) হত্যার রহস্য ২৪ ঘন্টা পর উন্মোচন করেছে পুলিশ।

এই হত্যার ঘটনায় সোমবার ভোরের আগে ডিবি ও বেলকুচি থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে আইয়ুব আলী ওরফে সাগর নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে।

সোমবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত আইয়ুব আলী (সাগর) প্রাথমিক জবানবন্দির ভিত্তিতে হত্যার খোলাসা করেন সিরাজগঞ্জের সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোঃ আরিফুর রহমান মন্ডল বিপিএম (বার) পিপিএম (বার)। পুলিশ সুপার জানান গ্রেফতারকৃত আইয়ুব আলী সাগর নিহত রওশন আরা’র সৎ ভাগিনা। সে উল্লাপাড়া উপজেলার দূর্গানগর ইউনিয়নের নন্দিগাঁতী গ্রামের মোকসেদ আলীর ছেলে। আইয়ুব আলী সাগর এনজিওর ঋণ রয়েছে। গত ২৮ সেপ্টেম্বর ধুকুরিয়াবেড়া খালার বাড়িতে আসে আইয়ুব আলী সাগর। রাতে লকার ভেঙে টাকা ও স্বর্ণালন্কার চুরির সময় দেখে ফেলে রওশন আরা এসময়ে পাথর দিয়ে আঘাত করে ও গলা টিপে হত্যা করে এরই এক পর্যায়ে দুই শিশু ছেলে মাহিন ও জিহাদ কেউ হত্যা করে পালিয়ে যায় আইয়ুব আলী সাগর। এরপর এব্যাপারে নিহত রওশন আরার ভাই থানায় মামলা দায়ের করে। তারপর

গত ০১/১০/২০২২ খ্রিঃ তারিখে বেলকুচি থানাধীন মবুপুর গ্রামে বাহির থেকে শিকল আটকানো অবস্থায় একজন প্রাপ্ত বয়স্ক নারী এবং দুইজন শিশু সন্তানের অর্ধগলিত লাশ পাওয়া যায়। এই ঘটনায় বেলকুচি থানায় অজ্ঞাতনামা আসামী দিয়ে একটি হত্যা মামলা রুজু হয়।

চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলাটি দেশব্যাপি আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়। সিরাজগঞ্জ জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোঃ আরিফুর রহমান মন্ডল, বিপিএম(বার), পিপিএম(বার) এই হত্যায় জড়িত ব্যক্তিদের সনাক্তে একটি চৌকস টিম গঠন করেন। এতে

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ক্রাইম এ্যান্ড অপস্)মোঃ সামিউল আলম, এবং সহকারী পুলিশ সুপার, সিদ্দিক আহমেদ বেলকুচি সার্কেল এই টিমকে সার্বিক নির্দেশনা প্রদান করেন। চৌকস এই টিমের দূরদর্শী কার্যক্রম এবং সুযোগ্য পুলিশ সুপার এর নিবিড় তত্বাবধানের হত্যায় জড়িত ব্যক্তি মোঃ আইয়ুব আলী সাগর(২৮), পিতা- মৃত মোকছেদ মোল্লা, সাং-নন্দিগাতি, থানা-উল্লাপাড়া ও জেলা-সিরাজগঞ্জকে ০৩/১০/২০২২ খ্রিঃ তারিখ রাত্রি ০০.১০ ঘটিকার সময় গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী নিজে সম্পৃক্ততাসহ ঘটনার বিষয়ে লোমহর্ষক বর্ণনা দেয় জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠায় ।

ট্যাগ:

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

Popular Post

বেলকুচি চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডারের রহস্য উদঘাটনসহ হত্যাকারী গ্রেফতার।

আপডেটের সময় 11:49 pm, Monday, 3 October 2022

 

আজিজুর রহমান মুন্না, সিরাজগঞ্জ ঃ

সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি উপজেলা ধুকুরিয়া বেড়া ইউনিয়নে মবুপুর গ্রামের দুই ছেলে সহ মা রওশন আরা বেগম(২৯) হত্যার রহস্য ২৪ ঘন্টা পর উন্মোচন করেছে পুলিশ।

এই হত্যার ঘটনায় সোমবার ভোরের আগে ডিবি ও বেলকুচি থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে আইয়ুব আলী ওরফে সাগর নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে।

সোমবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত আইয়ুব আলী (সাগর) প্রাথমিক জবানবন্দির ভিত্তিতে হত্যার খোলাসা করেন সিরাজগঞ্জের সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোঃ আরিফুর রহমান মন্ডল বিপিএম (বার) পিপিএম (বার)। পুলিশ সুপার জানান গ্রেফতারকৃত আইয়ুব আলী সাগর নিহত রওশন আরা’র সৎ ভাগিনা। সে উল্লাপাড়া উপজেলার দূর্গানগর ইউনিয়নের নন্দিগাঁতী গ্রামের মোকসেদ আলীর ছেলে। আইয়ুব আলী সাগর এনজিওর ঋণ রয়েছে। গত ২৮ সেপ্টেম্বর ধুকুরিয়াবেড়া খালার বাড়িতে আসে আইয়ুব আলী সাগর। রাতে লকার ভেঙে টাকা ও স্বর্ণালন্কার চুরির সময় দেখে ফেলে রওশন আরা এসময়ে পাথর দিয়ে আঘাত করে ও গলা টিপে হত্যা করে এরই এক পর্যায়ে দুই শিশু ছেলে মাহিন ও জিহাদ কেউ হত্যা করে পালিয়ে যায় আইয়ুব আলী সাগর। এরপর এব্যাপারে নিহত রওশন আরার ভাই থানায় মামলা দায়ের করে। তারপর

গত ০১/১০/২০২২ খ্রিঃ তারিখে বেলকুচি থানাধীন মবুপুর গ্রামে বাহির থেকে শিকল আটকানো অবস্থায় একজন প্রাপ্ত বয়স্ক নারী এবং দুইজন শিশু সন্তানের অর্ধগলিত লাশ পাওয়া যায়। এই ঘটনায় বেলকুচি থানায় অজ্ঞাতনামা আসামী দিয়ে একটি হত্যা মামলা রুজু হয়।

চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলাটি দেশব্যাপি আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়। সিরাজগঞ্জ জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোঃ আরিফুর রহমান মন্ডল, বিপিএম(বার), পিপিএম(বার) এই হত্যায় জড়িত ব্যক্তিদের সনাক্তে একটি চৌকস টিম গঠন করেন। এতে

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ক্রাইম এ্যান্ড অপস্)মোঃ সামিউল আলম, এবং সহকারী পুলিশ সুপার, সিদ্দিক আহমেদ বেলকুচি সার্কেল এই টিমকে সার্বিক নির্দেশনা প্রদান করেন। চৌকস এই টিমের দূরদর্শী কার্যক্রম এবং সুযোগ্য পুলিশ সুপার এর নিবিড় তত্বাবধানের হত্যায় জড়িত ব্যক্তি মোঃ আইয়ুব আলী সাগর(২৮), পিতা- মৃত মোকছেদ মোল্লা, সাং-নন্দিগাতি, থানা-উল্লাপাড়া ও জেলা-সিরাজগঞ্জকে ০৩/১০/২০২২ খ্রিঃ তারিখ রাত্রি ০০.১০ ঘটিকার সময় গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামী নিজে সম্পৃক্ততাসহ ঘটনার বিষয়ে লোমহর্ষক বর্ণনা দেয় জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠায় ।