Dhaka , Friday, 12 July 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

ভাঙ্গুড়ায় ঈগল পাখি উদ্ধার, বন বিভাগে হস্তান্তর

 

নিউজ ডেস্ক দৈনিক চলনবিলের কথা

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় ঈগল পাখি উদ্ধার করা হয়েছে। পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের ভাঙ্গুড়া রেল স্টেশনের পূর্ব উত্তর পাশে করই গাছের তলে পড়ে থাকতে দেখে ঈগল পাখির বাচ্চা দুইটি উদ্ধার করেন ফরহাদ নামের এক ব্যক্তি। ফরহাদ উপজেলার মন্ডতোষ ইউনিয়নের দিয়ারপাড়া গ্রামের মৃত ফজলুল হকের ছেলে।

ফরহাদ বলেন, গত ১৯-২০ দিন আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে ঘুরতে বের হই। তখন ঈগল পাখির বাচ্চা দুইটি ভাঙ্গুড়া রেল স্টেশনের পূর্ব উত্তর পাশে করই গাছের তলে পড়ে থাকতে দেখি। আমি ঔখান থেকে পাখির বাচ্চা দুইটি নিয়ে এসে বাড়িতে লালন পালন করতে থাকি। এমতাবস্থায় মঙ্গলবার (৭ ফেব্রুয়ারী) আমি বাড়িতে ছিলাম না। আমার বউয়ের কাছ থেকে জাতীয় বন বিভাগের পাবনার চাটমোহর উপজেলার কর্মকর্তা এজাহিদ হোসেন, ভাঙ্গুড়া থানার এস আই মুরাদ হোসেন ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এসে ঈগল পাখির বাচ্চা দুইটি নিয়ে যায়।

এবিষয়ে চাটমোহর বন বিভাগের কর্মকর্তা এজাহিদ হোসেন বলেন, ভাঙ্গুড়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউনএনও) মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান স্যারের নির্দেশনায় ভাঙ্গুড়া থানার এস আই মুরাদ হোসেন ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ঈগল পাখির বাচ্চা দুইটি উদ্ধার করে। পরে বাচ্চা দুইটি পাবনা বন বিভাগে হস্তান্তর করা হয়।

চাটমোহর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এজাহিদ হোসেন আরো জানান, এসব পাখি প্রকৃতির অমূল্য সম্পদ। প্রকৃতিতে বেঁচে থাকার জন্য ঈগল পাখিকে হত্যা বা নির্যাতন না করে এদের প্রতি সবার সহানুভুতি কামনা করেন তিনি।

ভাঙ্গুড়ায় ঈগল পাখি উদ্ধার, বন বিভাগে হস্তান্তর

আপডেটের সময় 11:34 pm, Tuesday, 7 February 2023

 

নিউজ ডেস্ক দৈনিক চলনবিলের কথা

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় ঈগল পাখি উদ্ধার করা হয়েছে। পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের ভাঙ্গুড়া রেল স্টেশনের পূর্ব উত্তর পাশে করই গাছের তলে পড়ে থাকতে দেখে ঈগল পাখির বাচ্চা দুইটি উদ্ধার করেন ফরহাদ নামের এক ব্যক্তি। ফরহাদ উপজেলার মন্ডতোষ ইউনিয়নের দিয়ারপাড়া গ্রামের মৃত ফজলুল হকের ছেলে।

ফরহাদ বলেন, গত ১৯-২০ দিন আগে বৃহস্পতিবার বিকেলে ঘুরতে বের হই। তখন ঈগল পাখির বাচ্চা দুইটি ভাঙ্গুড়া রেল স্টেশনের পূর্ব উত্তর পাশে করই গাছের তলে পড়ে থাকতে দেখি। আমি ঔখান থেকে পাখির বাচ্চা দুইটি নিয়ে এসে বাড়িতে লালন পালন করতে থাকি। এমতাবস্থায় মঙ্গলবার (৭ ফেব্রুয়ারী) আমি বাড়িতে ছিলাম না। আমার বউয়ের কাছ থেকে জাতীয় বন বিভাগের পাবনার চাটমোহর উপজেলার কর্মকর্তা এজাহিদ হোসেন, ভাঙ্গুড়া থানার এস আই মুরাদ হোসেন ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এসে ঈগল পাখির বাচ্চা দুইটি নিয়ে যায়।

এবিষয়ে চাটমোহর বন বিভাগের কর্মকর্তা এজাহিদ হোসেন বলেন, ভাঙ্গুড়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউনএনও) মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান স্যারের নির্দেশনায় ভাঙ্গুড়া থানার এস আই মুরাদ হোসেন ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ঈগল পাখির বাচ্চা দুইটি উদ্ধার করে। পরে বাচ্চা দুইটি পাবনা বন বিভাগে হস্তান্তর করা হয়।

চাটমোহর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এজাহিদ হোসেন আরো জানান, এসব পাখি প্রকৃতির অমূল্য সম্পদ। প্রকৃতিতে বেঁচে থাকার জন্য ঈগল পাখিকে হত্যা বা নির্যাতন না করে এদের প্রতি সবার সহানুভুতি কামনা করেন তিনি।