Dhaka , Tuesday, 27 February 2024
www.dainikchalonbilerkotha.com

হাইকোর্টের নির্দেশনা অমান্য করে সড়ক ও মহাসড়কে আদায় করা হচ্ছে পৌর টোল।

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
টার্মিনাল ছাড়া সড়ক ও মহাসড়কে কোন টোল আদায় করা যাবে না মর্মে মহামান্য হাইকোর্টের দেয়া নির্দেশ অমান্য করে বরগুনার আমতলীতে আদায় করা হচ্ছে পৌর টোল।

আজ (রবিবার) সকালে সরেজমিনে আমতলী পৌর শহরের নতুন বাজার চৌরাস্তা ও সরকারী একে পাইলট হাই স্কুল সংলগ্ন চৌরাস্তায় দাঁড়িয়ে প্রতিটি যাত্রীবাহি বাস, পরিবহন বাস, ট্রাক, ট্রলি, মাহেন্দ্রা, টমটম, পিকআপ ও ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক থেকে নির্ধারিত হারে পৌর টোল আদায় করতে দেখা গেছে।

গত ২১ এপ্রিল ২০২২ তারিখ মহামান্য হাইকোর্টে বিভাগে দায়েরকৃত ৪৬৪০/২০২২নং রিট পিটিশনের আদেশের আলোকে টার্মিনাল ব্যতিরেকে সড়ক বা মহাসড়ক থেকে কোন প্রকার টোল উত্তোলন না করার জন্য সকল সিটি কর্পোরেশন এবং পৌরসভার মেয়রের দৃষ্টি আকর্ষন করে বিজ্ঞপ্তি জারি করার জন্য সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ হতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। গত ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখ সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ এর উক্ত নির্দেশনা প্রতিপালনের জন্য ৪৬,০০,০০০০,০৬৩,৩১,০০২,১৩- ১২৬৬ নং স্বারকে স্থাণীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রাণালয়, স্থাণীয় সরকার বিভাগ পৌর-১ শাখার উপসচিব মোঃ আব্দুর রহমান স্বাক্ষরিত এক পত্রে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অতিরিক্ত সচিব (নগর উন্নয়ন), স্থাণীয় সরকার বিভাগ, যুগ্ম সচিব (নগর উন্নয়ন-২) স্থাণীয় সরকার বিভাগ, বাংলাদেশ সচিবলায়, উপসচিব (পৌর-২) স্থাণীয় সরকার বিভাগ, সচিবের একান্ত সচিব, স্থাণীয় সরকার বিভাগ, ঢাকা। সকল পৌরসভার মেয়রকে পত্র দেয়া হয়েছে।

অথচ ওই পত্রে হাইকোর্টের আদেশে টার্মিনাল ব্যতীত সড়ক ও মহাসড়ক থেকে কোন প্রকার টোল আদায় করা যাবে না বলে উল্লেখ করা থাকলেও হাইকোর্টের ওই নির্দেশ অমান্য করে এখনো প্রকাশ্যে সড়ক ও মহাসড়কে দাঁড়িয়ে প্রতিটি যানবাহন থামিয়ে পৌর টোল আদায় করা হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঢাকাগামী দূরপাল্লা রুটে চলাচলকারী একাধিক পরিবহনের সুপারভাইজাররা জানান, শুনেছি হাইকোর্টের আদেশে টার্মিনাল ব্যতীত সড়ক ও মহাসড়কে যানবাহন দাঁড় করিয়ে কোন প্রকার টোল আদায় করা যাবে না। কিন্তু সেই আদেশ অমান্য করে প্রতিদিন আমতলী থেকে আমাদের দুরপাল্লার প্রতিটি পরিবহন থেকে প্রতিদিন ১০০ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে।

অভ্যান্তরিণ রুটে চলাচলরত যাত্রবাহি বাস মায়ের দোয়া পরিবহনের মালিক মোঃ আক্কাস চৌকিদার বলেন, আজো আমাদের প্রতিটি গাড়ী থেকে ৫০ টাকা করে পৌর টোল আদায় করে নিয়েছে।

নতুন বাজার চৌরাস্তায় দাঁড়িয়ে অভ্যান্তরিন রুটে চলাচলরত যাত্রীবাহি বাস থেকে পৌর টোল আদায়কারী মোঃ নিজাম উদ্দিন জানান, টোল আদায় বন্ধ করার জন্য পৌরসভা থেকে কোন নির্দেশনা দেয়া হয়নি। তাই এখনো পৌর টোল আদায় বন্ধ হয়নি।

অপরদিকে আমতলীর উপজেলার অভ্যান্তরে চলাচলরত ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক, মাহেন্দ্রা, টমটম, পিকআপ, টেম্পু ও ভাড়ায় চালিত প্রতিটি মোটর সাইকেল থেকে প্রতিদিন ১০ টাকা করে পৌর টোল আদায় করা হচ্ছে।

ইজিবাইক চালক রুহুল আমিন বলেন, প্রতিদিনের মত আজকেও নতুন বাজার চৌরাস্তায় ও একে স্কুল চৌরাস্তায় দাঁড়িয়ে আমাদের গাড়ী প্রতি ১০ টাকা করে পৌর টোল আদায় করছে।

এ বিষয়ে আমতলী পৌর মেয়র মোঃ মতিয়ার রহমান পত্র পাওয়ার কথা স্বীকার করে তিনি মুঠোফোনে বলেন, টার্মিনালের বাহিরে কোর প্রকার টোল আদায় করা যাবে না বলে মৌখিকভাবে আদায়কারীদের বলা হয়েছে। তবে পৌর শহরের মধ্যে বেশ কয়েকটি টমটম ও থ্রি-হুইলার মাহেন্দ্রা ষ্ট্যান্ড রয়েছে সেগুলো আমরা পৌরসভা থেকে স্বীকৃতি দিয়েছি। ওই সকল ষ্ট্যান্ড থেকে পৌরসভার টোল আদায় করা হচ্ছে।

ট্যাগ:

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

হাইকোর্টের নির্দেশনা অমান্য করে সড়ক ও মহাসড়কে আদায় করা হচ্ছে পৌর টোল।

আপডেটের সময় 04:13 pm, Sunday, 2 October 2022

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি।
টার্মিনাল ছাড়া সড়ক ও মহাসড়কে কোন টোল আদায় করা যাবে না মর্মে মহামান্য হাইকোর্টের দেয়া নির্দেশ অমান্য করে বরগুনার আমতলীতে আদায় করা হচ্ছে পৌর টোল।

আজ (রবিবার) সকালে সরেজমিনে আমতলী পৌর শহরের নতুন বাজার চৌরাস্তা ও সরকারী একে পাইলট হাই স্কুল সংলগ্ন চৌরাস্তায় দাঁড়িয়ে প্রতিটি যাত্রীবাহি বাস, পরিবহন বাস, ট্রাক, ট্রলি, মাহেন্দ্রা, টমটম, পিকআপ ও ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক থেকে নির্ধারিত হারে পৌর টোল আদায় করতে দেখা গেছে।

গত ২১ এপ্রিল ২০২২ তারিখ মহামান্য হাইকোর্টে বিভাগে দায়েরকৃত ৪৬৪০/২০২২নং রিট পিটিশনের আদেশের আলোকে টার্মিনাল ব্যতিরেকে সড়ক বা মহাসড়ক থেকে কোন প্রকার টোল উত্তোলন না করার জন্য সকল সিটি কর্পোরেশন এবং পৌরসভার মেয়রের দৃষ্টি আকর্ষন করে বিজ্ঞপ্তি জারি করার জন্য সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ হতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়। গত ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ তারিখ সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ এর উক্ত নির্দেশনা প্রতিপালনের জন্য ৪৬,০০,০০০০,০৬৩,৩১,০০২,১৩- ১২৬৬ নং স্বারকে স্থাণীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রাণালয়, স্থাণীয় সরকার বিভাগ পৌর-১ শাখার উপসচিব মোঃ আব্দুর রহমান স্বাক্ষরিত এক পত্রে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অতিরিক্ত সচিব (নগর উন্নয়ন), স্থাণীয় সরকার বিভাগ, যুগ্ম সচিব (নগর উন্নয়ন-২) স্থাণীয় সরকার বিভাগ, বাংলাদেশ সচিবলায়, উপসচিব (পৌর-২) স্থাণীয় সরকার বিভাগ, সচিবের একান্ত সচিব, স্থাণীয় সরকার বিভাগ, ঢাকা। সকল পৌরসভার মেয়রকে পত্র দেয়া হয়েছে।

অথচ ওই পত্রে হাইকোর্টের আদেশে টার্মিনাল ব্যতীত সড়ক ও মহাসড়ক থেকে কোন প্রকার টোল আদায় করা যাবে না বলে উল্লেখ করা থাকলেও হাইকোর্টের ওই নির্দেশ অমান্য করে এখনো প্রকাশ্যে সড়ক ও মহাসড়কে দাঁড়িয়ে প্রতিটি যানবাহন থামিয়ে পৌর টোল আদায় করা হচ্ছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঢাকাগামী দূরপাল্লা রুটে চলাচলকারী একাধিক পরিবহনের সুপারভাইজাররা জানান, শুনেছি হাইকোর্টের আদেশে টার্মিনাল ব্যতীত সড়ক ও মহাসড়কে যানবাহন দাঁড় করিয়ে কোন প্রকার টোল আদায় করা যাবে না। কিন্তু সেই আদেশ অমান্য করে প্রতিদিন আমতলী থেকে আমাদের দুরপাল্লার প্রতিটি পরিবহন থেকে প্রতিদিন ১০০ টাকা করে আদায় করা হচ্ছে।

অভ্যান্তরিণ রুটে চলাচলরত যাত্রবাহি বাস মায়ের দোয়া পরিবহনের মালিক মোঃ আক্কাস চৌকিদার বলেন, আজো আমাদের প্রতিটি গাড়ী থেকে ৫০ টাকা করে পৌর টোল আদায় করে নিয়েছে।

নতুন বাজার চৌরাস্তায় দাঁড়িয়ে অভ্যান্তরিন রুটে চলাচলরত যাত্রীবাহি বাস থেকে পৌর টোল আদায়কারী মোঃ নিজাম উদ্দিন জানান, টোল আদায় বন্ধ করার জন্য পৌরসভা থেকে কোন নির্দেশনা দেয়া হয়নি। তাই এখনো পৌর টোল আদায় বন্ধ হয়নি।

অপরদিকে আমতলীর উপজেলার অভ্যান্তরে চলাচলরত ব্যাটারী চালিত ইজিবাইক, মাহেন্দ্রা, টমটম, পিকআপ, টেম্পু ও ভাড়ায় চালিত প্রতিটি মোটর সাইকেল থেকে প্রতিদিন ১০ টাকা করে পৌর টোল আদায় করা হচ্ছে।

ইজিবাইক চালক রুহুল আমিন বলেন, প্রতিদিনের মত আজকেও নতুন বাজার চৌরাস্তায় ও একে স্কুল চৌরাস্তায় দাঁড়িয়ে আমাদের গাড়ী প্রতি ১০ টাকা করে পৌর টোল আদায় করছে।

এ বিষয়ে আমতলী পৌর মেয়র মোঃ মতিয়ার রহমান পত্র পাওয়ার কথা স্বীকার করে তিনি মুঠোফোনে বলেন, টার্মিনালের বাহিরে কোর প্রকার টোল আদায় করা যাবে না বলে মৌখিকভাবে আদায়কারীদের বলা হয়েছে। তবে পৌর শহরের মধ্যে বেশ কয়েকটি টমটম ও থ্রি-হুইলার মাহেন্দ্রা ষ্ট্যান্ড রয়েছে সেগুলো আমরা পৌরসভা থেকে স্বীকৃতি দিয়েছি। ওই সকল ষ্ট্যান্ড থেকে পৌরসভার টোল আদায় করা হচ্ছে।