Logo
শিরোনাম
রেকর্ড ২৩১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১৩৩২১ নীলকষ্টের পরিক্রমা ৩ -পিএম. জাহিদ জনগুরুত্বপুর্ণ রাস্তার বেহাল দশাঃসংস্কার চাই। ইসরাইলের বর্বরতার বিরুদ্ধে স্বরচিত কবিতা পাঠের আসর সিংড়ায় রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবিতে সাংবাদিকদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা রমানাথপুরসহ কয়েকটি গ্রামের অর্ধশত পরিবার পেলো  ঈদ সামগ্রী উপহার কুয়াবাসী গ্রামের ১০০ পরিবার পেলো ঈদ উপহার কবিতা ভালোবাসার লাল গোলাপ কবি সাজিয়া আফরিন কবি -পিএম. জাহিদের ধারাবাহিক সিরিজ কবিতা ” নীলকষ্টের পরিক্রমা ২” আমি ছুয়ে যাই শিরোনামে কবি হাবিবুর রহমানের লেখা কবিতা কবি সাজিয়া আফরিনের কবিতা “এইতো জীবন “। কবি পি এম জাহিদের ধারাবাহিক কবিতা “নীলকষ্ঠের পরিক্রমা-০১” নোবেলের ‘মেহেরবান’ আসছে ২৫ রোজার পর কবি মোঃ আমিনুল ইসলাম মিন্টুর সমসাময়িক পরিস্থিতির কবিতা ” সমাজ এখন জিম্মি “। পাবনায়১২ কেজি গাঁজাসহ এসআই ওছিম গ্রেপ্তার। কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানা পরিদর্শন করলেন এসপি খাইরুল আলম কুষ্টিয়ায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে অবরুদ্ধ কৃষক সৈয়দ বেলাল হোসেন পাবেল এর নেতৃত্বে ধান কাটলো পটুয়াখালী জেলা ছাত্র লীগ সাতদিনেই ভেঙ্গে গেলো শ্রাবন্তীর ভালোবাসার সংসার ভোলায় এক মাসে ডায়রিয়া আক্রান্ত ৫ হাজারের অধিক ॥ পানিতে মিলেছে ডায়রিয়া জীবানু

নির্ভীক ছুটে চলা এক ইউএনও

নির্ভীক ছুটে চলা এক ইউএনও

মোঃ কামাল হোসেন যশোর জেলা প্রতিনিধি


দেশের সাধারণ জনগনের কাছাকাছি সরকারি সেবা পৌছে দেওয়ার লক্ষে মাঠ পর্যায়ে সবচেয়ে বেশি কাজ করছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগন সরকারি সকল সিদ্ধান্তের সঠিক বাস্তবায়ন সহ জনগনের  প্রকৃত সেবায় নিয়োজিত হবেন এটাই স্বাভাবিক।কিন্তু দায়িত্বের বাহিরে গিয়েও অনেক সময় যখন সরকারি কর্মকর্তারা সাধারণ জনগনকে ভালো রাখার জন্য দিনরাত কাজ করেন ও তাদের  কাজের ধারাবাহিক গতি যখন অস্বাভাবিকভাবে ভালো হয় তখন সাধারণ জনগণ সহ অাপামর জনতার শ্রদ্ধার মানুষে পরিনত হোন অনেক সরকারি কর্মকর্তা।বলছিলাম এমনই একজন সরকারি কর্মকর্তা অভয়নগর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোঃ নাজমুল হুসাইন খাঁনের কথা।অভয়নগরে যোগদানের পর থেকেই কাজের মাধ্যমে জয় করেছেন অভয়নগর বাসীর মন।

করোনাকালে যশোর জেলার অভয়নগর উপজেলার এক অালোচিত ইউএনও হলেন মোঃ নাজমুল হুসাইন খাঁন করোনা ভাইরাসে সাধারণ মানুষের সুরক্ষার জন্য  ছুটে বেড়ান অভয়নগর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ।উপজেলার এক প্রান্ত থেকে অারেক প্রান্তে তিনি  ছুটছেন সাধারণ অসহায় পরিবার গুলোর জন্য সাহায্য নিয়ে।করোনার লকডাউনে অসহায় খেটে খাওয়া মানুষ যখন ঘরবন্দী ছিলেন তখন তিনি অনেকটা ঝুঁকি নিয়ে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে ছুটে চলেছেন ঘরে ঘরে।শুধু তাই নয় মহামারির কবলে পড়া করোনা রোগীর খোঁজ খবর রেখেছেন হরহামেশা,বাড়িয়েছেন সহায়তার হাত কখনও অাবার হাতে ফল-ফ্রুট নিয়ে হাজির হয়েছেন করোনা রোগীর বাড়ীতে। যেখানে অনেক সরকারি কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন দিনের পর দিন, সেখানে করোনায় অাক্রান্ত হওয়ার শংকা কে উপেক্ষা করে তিনি করোনায় মৃত ব্যক্তিদের দাফন কাপনে নিয়েছেন জোড়ালো ভূমিকা।

করোনার ভয়কে জয় করে অভয়নগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বড় সাফল্য দেখিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার ক্ষেত্রে।করোনা প্রাদুর্ভাবের শুরুতে মার্চ মাসে  যখন মানুষের মধ্যে রীতিমত অাতংক ঠিক সেই মার্চে ইউএনও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে বিভিন্ন অাইনে মামলায় অর্থদন্ড অাদায় করেছেন।করোনাকালে গত মার্চ মাস থেকে অগাস্ট মাস পর্যন্ত তিনি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে বিভিন্ন অাইনে মামলায় জরিমানা অাদায় করেছেন। অনেক যাহার সাফল্য আমাদের সকলের জন্য ব্যাক্তি মোঃ নাজমুল হুসাইন খাঁনের একার নয়।

সরকারি নির্দেশমত সামাজিক দুরুত্ব বজায়,নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রীর মূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখার জন্য নিয়মিত বাজার  মনিটরিং করা,খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর চাল বিক্রিতে অমিয়মকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ সহ নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অাইন অমান্য কারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করায় অভয়নগর উপজেলা জুড়ে সাধারণ মানুষের  শ্রদ্ধাও ভালোবাসায় সিক্ত হয়েছেন ইউএনও মোঃ নাজমুল হুসাইন খাঁন।

করোনাকালে বিভিন্ন সরকারি সহায়তা ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণের লক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যানদ্বয়,পৌরসভার মেয়র ও বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয় করে অসহায় দুঃস্থদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন।করোনায় ঝিমিয়ে পড়া শিক্ষা ব্যবস্থাকে চাঙ্গা করার লক্ষে নিয়েছেন নানা প্রদক্ষেপ।মাধ্যমিক পর্যায়ের  শিক্ষার্থীরা যাতে পড়ালেখায় পিছিয়ে না পড়ে সে জন্য তিনি ঘরে বসে অনলাইন শিক্ষার ব্যবস্থা করেছেন।তিনি করোনায় বন্ধ থাকা বেসরকারি কিন্ডারগার্টেন স্কুল গুলোর অসহায় শিক্ষকদের সহায়তা করে মানবিকতার পরিচয় দিয়েছেন।

ইউএনও মোঃ নাজমুল হুসাইন খাঁন বলেন,করোনার শুরু থেকে এখন পর্যন্ত দিনরাত মাঠে কাজ করে যাচ্ছি সাধারণ মানুষদের কে সুরক্ষার জন্য। অভয়নগর উপজেলার ৯টি ইউনিয়নও একটি পৌরসভার অসহায় গরীব দুঃস্থ মানুষের কাছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিভিন্ন মানবিক সহায়তা সঠিক ভাবে পৌছে দিয়েছি।

অামাকে সার্বক্ষনিক  সহায়তা করেছেন অভয়নগরের বিভিন্ন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী এবং সামাজিক সংগঠন পাশে থেকেছেন উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ভাবে খাদ্য সহায়তা করেছি।

হয়ত একদিন করোনার থাবা বন্ধ হবে,পৃথিবী হবে আবার শান্ত,সেদিন নাজমুল হুসাইন খাঁন অভয়নগরে থাকুক আর নাই থাকুক অভয়নগরের মানুষ সব সময় শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ  রাখবে তাঁর কর্মময় জীবন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Categories

Theme Created By ThemesWala.Com