Logo
শিরোনাম
জনগুরুত্বপুর্ণ রাস্তার বেহাল দশাঃসংস্কার চাই। ইসরাইলের বর্বরতার বিরুদ্ধে স্বরচিত কবিতা পাঠের আসর সিংড়ায় রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবিতে সাংবাদিকদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা রমানাথপুরসহ কয়েকটি গ্রামের অর্ধশত পরিবার পেলো  ঈদ সামগ্রী উপহার কুয়াবাসী গ্রামের ১০০ পরিবার পেলো ঈদ উপহার কবিতা ভালোবাসার লাল গোলাপ কবি সাজিয়া আফরিন কবি -পিএম. জাহিদের ধারাবাহিক সিরিজ কবিতা ” নীলকষ্টের পরিক্রমা ২” আমি ছুয়ে যাই শিরোনামে কবি হাবিবুর রহমানের লেখা কবিতা কবি সাজিয়া আফরিনের কবিতা “এইতো জীবন “। কবি পি এম জাহিদের ধারাবাহিক কবিতা “নীলকষ্ঠের পরিক্রমা-০১” নোবেলের ‘মেহেরবান’ আসছে ২৫ রোজার পর কবি মোঃ আমিনুল ইসলাম মিন্টুর সমসাময়িক পরিস্থিতির কবিতা ” সমাজ এখন জিম্মি “। পাবনায়১২ কেজি গাঁজাসহ এসআই ওছিম গ্রেপ্তার। কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানা পরিদর্শন করলেন এসপি খাইরুল আলম কুষ্টিয়ায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে অবরুদ্ধ কৃষক সৈয়দ বেলাল হোসেন পাবেল এর নেতৃত্বে ধান কাটলো পটুয়াখালী জেলা ছাত্র লীগ সাতদিনেই ভেঙ্গে গেলো শ্রাবন্তীর ভালোবাসার সংসার ভোলায় এক মাসে ডায়রিয়া আক্রান্ত ৫ হাজারের অধিক ॥ পানিতে মিলেছে ডায়রিয়া জীবানু সিংড়ায় ট্রাকের ধাক্কায় দুই মাদ্রাসা শিক্ষক নিহত কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সালিশি বৈঠকে সংঘর্ষ মেম্বার সহ আহত -৯

অভয়নগরে এক মিনিটেই ঝড়ে লণ্ডভণ্ড তিন গ্রাম!

যশোরের অভয়নগরে এক মিনিটেই ঝড়ে লণ্ডভণ্ড তিন গ্রাম!

মোঃ কামাল হোসেন, যশোর জেলা প্রতিনিধি


যশোরের অভয়নগরে এক মিনিটের ঘূর্ণিঝড়ে লন্ডভন্ড হয়েছে তিন গ্রাম। ভেঙ্গে পড়েছে কয়েক হাজার গাছপালা। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে শতশত ঘরবাড়ি। ছিড়েছে বিদ্যুতের তার, বন্ধ রয়েছে বিদ্যুৎ সরবরাহ।

রোববার  (২০ সেপ্টেম্বর) সকালে বর্জ্রপাতসহ শুরু হয় প্রবল বৃষ্টি,দমকা হাওয়া।এক পর্যায়ে দমকা হাওয়া ঘুর্নিঝড়ে রূপ নিয়ে উপজেলার তিনটি গ্রাম মোয়াল্লেমতলা, অভয়নগর ও ভাটপাড়া উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। এসময় ঘূর্ণিঝড়ে ওই তিন গ্রামের হাজার হাজার ফলজ-বনজ ও ঔষধী গাছ ভেঙ্গে পড়ে। তার ছিড়ে পড়ায় বন্ধ হয়ে যায় বিদ্যুৎ সরবরাহ।

সরেজমিনে মোয়াল্লেমতলা, অভয়নগর ও ভাটপাড়া গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থরা তাদের বাড়ি ও রাস্তা থেকে ভেঙ্গে পড়া গাছ ও ডাল অপসারণের কাজ করছে। ঘরের উড়ে যাওয়া চাল মেরামত করছে। বৃষ্টিতে ভিজে যাওয়া আসবাবপত্র, কাপড়, পাঠ্যবই ও নিত্যপ্রয়োজনিয় সামগ্রী রোদে শুকাচ্ছে ক্ষতিগ্রস্থরা।

অভয়নগর গ্রামের আশিক মোল্যা জানান, সকালে প্রায় এক মিনিট স্থায়ী ঘূর্ণিঝড়ে তার সবতবাড়ির ঘরের চাল উড়ে গেছে। ভেঙ্গে পড়েছে বেশ কয়েকটি ফলের গাছ। উপড়ে গেছে বাঁশ ঝাড়। ভিজে গেছে ঘরের আসবাবপত্র, কাপড় ও বই-খাতা।

ভাটপাড়া গ্রামের খায়ের আলী বলেন,‘ঝড়ের তান্ডবে আমার শতশত ফলজ ও বনজ গাছ ভেঙ্গে গেছে। উড়ে গেছে ঘরের টিন। খোলা আকাশের নিচে পরিবার নিয়ে আছি’।

মোয়াল্লেমতলা গ্রামের হাজী মিজানুর রহমান জানান, চোখের পলকে সবকিছু লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। ঝড়ের তীব্রতায় বিদ্যুতের তার ছিড়ে বন্ধ হয়ে গেছে বিদ্যুৎ সরবরাহ।

এ ব্যাপারে উপজেলার বাঘুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বাবুল আক্তার বলেন,‘ঘূর্ণিঝড়ে আমার ইউনিয়নের ভাটপাড়া ও অভয়নগর গ্রামে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে সরকারি সহায়তা দিতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অবগত করা হয়েছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো. শরিফ আহম্মেদ রুবেল জানান, ঘূর্ণিঝড়ের বিষয়টি জানতে পেরেছি। ক্ষয়ক্ষতি ও ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা তৈরির প্রক্রিয়া চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Categories

Theme Created By ThemesWala.Com