Logo
শিরোনাম
জামালপুর সদরে এক কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার রাণীশংকৈলে জাতীয় বীমা দিবস পালিত সিংড়ায় হাই-কোর্ট থেকে রায় পাওয়ার পরও ভাতা পাচ্ছেনা মুক্তিযোদ্ধারা ভাঙ্গুড়ায় ঘর দেবার কথা বলে  টাকা নিয়ে ঘর না দিয়ে উল্টো মারধর।  কবিতার শিরোনামঃ বসন্ত সমাচার কবিঃ মারিয়া আক্তার রিয়া রাণীশংকৈলে মহান জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত রাণীশংকৈলে মুক্তা সুপার মার্কেটের উদ্বোধন কবিতার শিরোনাম দেশের ছবি,কবি নুরুল ইসলাম বাবুল বেঙ্গল সিমেন্ট নিবেদিত বাংলার গায়েন’র চ্যাম্পিয়ন পাবনা চাটমোহরের রাসেল। পাবনা পৌরসভা নির্বাচনে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শরীফ প্রধান মেয়র নির্বাচিত সিংড়া পৌরসভায় ফেরদৌস পুনরায় নির্বাচিত রাণীশংকৈল পৌর নির্বাচনে নৌকা আ’লীগের ৫ বিদ্রোহী প্রার্থী বহিস্কার ভাঙ্গুড়ায় বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মুমূর্ষ দুই যুবক রুনু ভেরোনিকা কস্তা: বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম ভ্যাকসিন বা টিকা নিলেন যে নার্স এম পি হিসেবে প্রথম টিকা নিলেন চলনবিলের কৃতি সন্তান জুনাইদ আহমেদ পলক কবিতার শিরোনামঃ আমি ধোকাবাজ, কবি দোলনা বড়ুয়া তৃষা। রাণীশংকৈলে দিন ব্যাপী পিঠা উৎসবের উদ্বোধন আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইনের স্মরন সভায় কেন্দ্রীয় নেতাসহ পটুয়াখালীর সকল নেতা কর্মী হাজির রাণীশংকৈলে ধান রোপণ যন্ত্রের মাধ্যমে ধানের চারা কার্যক্রমের উদ্বোধন সিংড়ায় ধানের শীষের প্রচারণায় হামলা, ছাত্রদল নেতা আহত

রাণীশংকৈলে নবম শ্রেনীর ছাত্র জহরুলে ঝালমুড়ি বিক্রি করে চলে সংসার ও পড়াশোনা খরচ

রাণীশংকৈলে নবম শ্রেনীর ছাত্র জহরুলে ঝালমুড়ি বিক্রি করে চলে সংসার ও পড়াশোনা খরচ

মাহাবুব আলম রাণীশংকৈল ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ।


ঠাকুরগাঁওয়ে রানীশংকৈলে পৌর শহরের রংপুরিয়া মার্কেটের সাদেকুলের ছেলে জহরুল নবম শ্রেণীর ছাত্র ঝালমুড়ি বিক্রি করে চলে সংসার ও পড়াশোনা খরচ । (২৬ সেপ্টেম্বর রাণীশংকৈল সোনালী ব্যাংকের সামনে চোখ পড়ে যায় । ছোট একটি ছেলে ঝালমুড়ি বিক্রি করছে ।

তাকে প্রশ্ন করলে তুমি এত অল্প বয়সে ঝালমুড়ি বিক্রি কর কেন । বাবা নাই পড়াশোনা কর না। এমন প্রশ্নে জহরুল বলে উঠল জি আমি পড়ালেখা করি । উপজেলার দাখিল মাদরাসার নবম শ্রেণীর ছাত্র । আমার বাবা একজন গরিব অসহায় মানুষ । আমরা তিন ভাই আমি বড় । আমার বাবা ঘাস বিক্রি করে সংসার চালায় । আমার পড়াশোনা খরচ যোগাতে পারে না । তাই আমি ঝালমুড়ি বিক্রি করে পড়াশোনা খরচ যোগায় পাশাপাশি কিছু টাকা সংসারে দেয় ।

এ বিষয়ে জহরুলের বাবা সাদেকুলের সঙ্গে কথা বললে যে আপনি এত অল্প বয়সে ছেলেকে ফুটপাতে দোকান করান কেন । তিনি বলে উঠলো আমি ঘাস বিক্রি করে সংসার চালায়। ছেলের পড়াশোনা খরচ কি ভাবে দিব । আমার তিন সন্তান স্ত্রী সহ পরিবারের সংখ্যা পাঁচ জন । করোনা আসাতে সেই রকম কাজ কর্ম পায় না । তাই ছেলে সকালে কোচিং করে আর রাতে ফুটপাতে ঝালমুড়ি বিক্রি করে। এবং এই করোনা ভাইরাস আসার পর অনেক নেতার দ্বারে দ্বারে গেছি । সবাই দিব দিব বলে আশ্বাস দিছে কিন্তু আজ পর্যন্ত কেউ পাশে এসে দাঁড়ায় নি । দুঃখের কথা খুব কষ্টে চলে আমার সংসার ।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Categories

Theme Created By ThemesWala.Com