Logo
শিরোনাম
রাণীশংকৈলে জাতীয় বীমা দিবস পালিত সিংড়ায় হাই-কোর্ট থেকে রায় পাওয়ার পরও ভাতা পাচ্ছেনা মুক্তিযোদ্ধারা ভাঙ্গুড়ায় ঘর দেবার কথা বলে  টাকা নিয়ে ঘর না দিয়ে উল্টো মারধর।  কবিতার শিরোনামঃ বসন্ত সমাচার কবিঃ মারিয়া আক্তার রিয়া রাণীশংকৈলে মহান জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত রাণীশংকৈলে মুক্তা সুপার মার্কেটের উদ্বোধন কবিতার শিরোনাম দেশের ছবি,কবি নুরুল ইসলাম বাবুল বেঙ্গল সিমেন্ট নিবেদিত বাংলার গায়েন’র চ্যাম্পিয়ন পাবনা চাটমোহরের রাসেল। পাবনা পৌরসভা নির্বাচনে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী শরীফ প্রধান মেয়র নির্বাচিত সিংড়া পৌরসভায় ফেরদৌস পুনরায় নির্বাচিত রাণীশংকৈল পৌর নির্বাচনে নৌকা আ’লীগের ৫ বিদ্রোহী প্রার্থী বহিস্কার ভাঙ্গুড়ায় বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মুমূর্ষ দুই যুবক রুনু ভেরোনিকা কস্তা: বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম ভ্যাকসিন বা টিকা নিলেন যে নার্স এম পি হিসেবে প্রথম টিকা নিলেন চলনবিলের কৃতি সন্তান জুনাইদ আহমেদ পলক কবিতার শিরোনামঃ আমি ধোকাবাজ, কবি দোলনা বড়ুয়া তৃষা। রাণীশংকৈলে দিন ব্যাপী পিঠা উৎসবের উদ্বোধন আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইনের স্মরন সভায় কেন্দ্রীয় নেতাসহ পটুয়াখালীর সকল নেতা কর্মী হাজির রাণীশংকৈলে ধান রোপণ যন্ত্রের মাধ্যমে ধানের চারা কার্যক্রমের উদ্বোধন সিংড়ায় ধানের শীষের প্রচারণায় হামলা, ছাত্রদল নেতা আহত দক্ষ সাংগাঠনিক নেতৃত্বে ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগের কমিটি অনুমোদন

ভোলায় ইলিশ ধরার অপরাধে ৫৯ জেলের জেল-জরিমানা

ভোলায় ইলিশ ধরার অপরাধে ৫৯ জেলের জেল-জরিমানা

এস আর শাকিব খান, ভোলা প্রতিনিধিঃ


নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকারের দায়ে গত ৩ দিনে ভোলায় ৫৯ জেলের জেল-জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। শনিবার (১৬ অক্টোবর) বিকাল পর্যন্ত ভোলা সদর ও বোরহানউদ্দিন উপজেলা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতদের মধ্য ৮ জনের এক বছর করে জেল ও ৫ জনের ৫ হাজার করে ২৫ হাজার জরিমানা আদায় করা হয়েছে। ভোলায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরার অপরাধে ২৫ জনকে জেল জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) সন্ধ্যা পর্যন্ত অভিযানে তাদের জেল-জরিমানা করা হয়। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরার অপরাধে ভোলার চরফ্যাশনে ও মনপুরায় ১২ জেলেকে আটক হয়। পরে ভ্রাম্যনান আদালত উভয় জেলেকে ১ বছর করে সাজা প্রধান করেন।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে জেলেরা যাতে ইলিশ শিকার করতে না পারে সেজন্য নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, মৎস্যবিভাগ, পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও কোস্টগার্ড অভিযান চালায়। এ সময় মেঘনার বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে ইলিশ ধরার অপরাধে ১৩ জেলেকে আটকের পর জেল-জরিমানা করা হয়েছে। গত ৩ দিনে এ পর্যন্ত ৫০ জেলেকে আটক করা হয়েছে, যাদের মধ্যে ২৮ জনের কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। ইলিশ রক্ষায় সর্বমোট ২৯টি অভিযান ও ২৫টি মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়েছে বলেও জানান তিনি।
এদিকে, ভোলায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরার অপরাধে ২৫ জনকে জেল জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) সন্ধ্যা পর্যন্ত অভিযানে তাদের জেল-জরিমানা করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে বোরহানউদ্দিন থেকে ৪ জন, মনপুরা থেকে ৭ জন, ভোলা সদরে ৩ জন ও চরফ্যাশন থেকে ১১ জন রয়েছে।
এদের মধ্যে ১৫ জনের এক বছর করে কারাদন্ড ও ১০ জনের জরিমানা আদায় করা হয়েছে। জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ আজাহারুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ইলিশ রক্ষায় ভোলার মেঘনা তেঁতুলিয়ায় সকাল থেকে সন্ধা পর্যান্ত জেলায় ১৪টি টিম টহলে ছিলো।
এ সময় টহল দলের অভিযানে ২৫ জেলেকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমান আদালতে ১৫ জনের কারাদন্ড ও ১০ জনের ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা আদায় করা হয়।
অন্যদিকে, নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ ধরার অপরাধে ভোলার চরফ্যাশনে ও মনপুরায় ১২ জেলেকে আটক হয়। পরে ভ্রাম্যনান আদালত উভয় জেলেকে ১ বছর করে সাজা প্রধান করেন। এর আগে আভিজানের প্রথমদিনে ৯ জেলেকে ৫ হাজার করে ৪৬ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়াও ১১ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ১২ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়েছে। আটককৃত জেলেদের মধ্যে তজুমদ্দিনে উপজেলায় ৭ জন ও বোরহানউদ্দিন উপজেলায় ২ জন রয়েছে। এখন পর্যন্ত মা ইলিশ ধরার অপরাধে ভোলায় ২১ জেলেকে জেল-জরিমানা করা হয়েছে।
জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আজহারুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ২২ দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ। ইলিশ রক্ষায় জেলা প্রশাসনের নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হয়েছে। এসব অভিযানে মৎস্যবিভাগ, পুলিশ ও কোস্টগার্ড টহল ছিলো। প্রথমদিনে মেঘনা-তেঁতুলিয়া নদীতে তেমন মাছ ধরার নৌকা দেখা যায়নি, তবে যারা নেমেছে তাদের আটক করে মোবাইল কোর্টে জরিমানা আদায় করা হয়েছে।
এ বছর ইলিশ নিষেধাজ্ঞা সময়ে জেলার এক লাখ ২০ হাজার নিবন্ধনকৃত জেলেকে ২০ কেজি করে চাল দেয়া হবে। যা আগামী ২/৩ দিনের মধ্যে বিতরন শেষ হবে।
এদিকে কোস্টগার্ডের পক্ষ থেকে জেলেদের সচেতনার করার লক্ষে ভোলার ইলিশা তালতলিসহ বিভিন্ন মাছঘাটে কোস্টগার্ড দক্ষিন জোনের জোনাল কমান্ডার ক্যাপ্টেন এম মনজুর-উল- করিম চৌধুরী মৎস্যজীবি, বোট মালিক সমিতির সদস্য ও মৎস্য ব্যবসায়ীদের মাঝে লিফলেট বিতরণ করেন।
নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে যেন কেউ যেন মা ইলিশ ধরতে নদী না নামে সে জন্য জেলেদের সচেতন করতে এ লিফলেট বিতরন করা হয়। কোস্টগার্ড ইলিশ রক্ষায় ১৬টি স্থায়ী ও লালমোহনে ১টি অস্থায়ী ষ্টেশন বরিশাল বিভাগের ৫টি জেলায় টহল কার্যক্রম শুরু করেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Categories

Theme Created By ThemesWala.Com