Logo
শিরোনাম
রমানাথপুরসহ কয়েকটি গ্রামের অর্ধশত পরিবার পেলো  ঈদ সামগ্রী উপহার কুয়াবাসী গ্রামের ১০০ পরিবার পেলো ঈদ উপহার কবিতা ভালোবাসার লাল গোলাপ কবি সাজিয়া আফরিন কবি -পিএম. জাহিদের ধারাবাহিক সিরিজ কবিতা ” নীলকষ্টের পরিক্রমা ২” আমি ছুয়ে যাই শিরোনামে কবি হাবিবুর রহমানের লেখা কবিতা কবি সাজিয়া আফরিনের কবিতা “এইতো জীবন “। কবি পি এম জাহিদের ধারাবাহিক কবিতা “নীলকষ্ঠের পরিক্রমা-০১” নোবেলের ‘মেহেরবান’ আসছে ২৫ রোজার পর কবি মোঃ আমিনুল ইসলাম মিন্টুর সমসাময়িক পরিস্থিতির কবিতা ” সমাজ এখন জিম্মি “। পাবনায়১২ কেজি গাঁজাসহ এসআই ওছিম গ্রেপ্তার। কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানা পরিদর্শন করলেন এসপি খাইরুল আলম কুষ্টিয়ায় জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে অবরুদ্ধ কৃষক সৈয়দ বেলাল হোসেন পাবেল এর নেতৃত্বে ধান কাটলো পটুয়াখালী জেলা ছাত্র লীগ সাতদিনেই ভেঙ্গে গেলো শ্রাবন্তীর ভালোবাসার সংসার ভোলায় এক মাসে ডায়রিয়া আক্রান্ত ৫ হাজারের অধিক ॥ পানিতে মিলেছে ডায়রিয়া জীবানু সিংড়ায় ট্রাকের ধাক্কায় দুই মাদ্রাসা শিক্ষক নিহত কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সালিশি বৈঠকে সংঘর্ষ মেম্বার সহ আহত -৯ বিশ্ব বই দিবস আজ: যেভাবে এলো দিনটি কবি পিএম. জাহিদের মেথরের বেটি- ২ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে রিমা নামের এক নববধূর লাশ উদ্ধার

বাল্য বিয়ের বলি ১৪ বছরের কিশোরী, বিয়ের ৩৪ দিনের মাথায় মৃত্যু

বাল্য বিয়ের বলি ১৪ বছরের কিশোরী, বিয়ের ৩৪ দিনের মাথায় মৃত্য

নিজস্ব প্রতিবেদক দৈনিক চলনবিলের কথা


বাল্য বিয়ের বলি হয়ে, অকালে জীবন দিতে হলো টাঙ্গাইলের বাসাইলের ১৪ বছরের নুর নাহারকে। তার পরিবারের অভিযোগ, স্বামী আর শ্বশুর বাড়ির অবহেলায় মৃত্যু হয়েছে মেয়েটির।

অভাবের তাড়নায় প্রায় তিনগুণ বয়সী যার হাতে আদরের সন্তানটি তুলে দিয়েছিলেন সেই স্বামীর বিরুদ্ধেই মেয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

নুর নাহারের মা বলেন, ‘আমার মেয়ে অনেক কষ্ট নিয়ে মারা গেছে। আমি এর শাস্তি চাই।’

ভ্যানচালক বাবার মেধাবী সন্তান সে। নানাবাড়ির সহায়তায় অষ্টম শ্রেণিতে পড়তো মেয়েটি। মাত্র ৩৫ দিন আগেই বিনা রেজিস্ট্রিতে বিয়ে হয় পাশের ফুলকি গ্রামের বিদেশ ফেরত রাজিব খানের সঙ্গে। বিয়ের রাতেই জনন অঙ্গে শুরু হয় রক্তক্ষরণ।

নুর নাহারের স্বজনরা জানান, ‘শ্বাশুড়ি ও তার স্বামী কি একটা ওষুধ খাইয়েছিলো। তারা ঠিকভাবে চিকিৎসা করায়নি। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’

অনেক অবহেলার পর, অবস্থার অবনতি হলে আনা হয় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। রবিবার (২৬ অক্টোবর) ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তার। তবে অভিযোগ মানতে নারাজ স্বামীর বাড়ির লোকজন।

নুর নাহারের স্বামী রাজিব খান বলেন, ‘তারে যে ভুতে ধরেছিলো এ কারণে সে খেতে পারতো না, কিছু ভালো লাগতো না তার। আমরা এক কবিরাজের কাছে নিয়ে গিয়েছিলাম।’

রাজিব খানের মা বলেন, ‘আমার ছেলে বিয়ে করে আনছে, এখন সে বড়ি লালটা খেয়েছে না সাদাটা খেয়েছে এটা তো আমি বলতে পারবো না।’

ময়নাতদন্ত শেষে তার নানার বাড়িতেই দাফন করা হয়েছে নুর নাহারকে। তদন্ত সাপেক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা শামছুন নাহার স্বপ্না।

এদিকে, টাঙ্গাইলের বাসাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারুনুর রশিদ বলেন, ‘বাদী তো কনফার্ম না কিভাবে মারা গেছে তার মেয়েটা। মারা গেছে মা-বাবার হেফাজতে, শ্বশুর বাড়িতে না। তদন্ত চলছে, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নিতে পারবো।’

অপ্রাপ্ত বয়সে বিয়ে হওয়ায় এমন মৃত্যু ঝুঁকি দিন দিন বাড়ছে। বাল্যবিয়ে বন্ধে এখনি জোরালো পদক্ষেপ নেয়ার দাবি স্থানীয়দের।

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Categories

Theme Created By ThemesWala.Com